‘নোংরা রাজনীতির জন্য প্রধানমন্ত্রী কিষাণ যোজনা থেকে বঞ্চিত কৃষকরা’, ফের মমতাকে খোঁচা ধনকড়ের

ইদানিংকালে বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে রাজ্য এবং রাজ্যপালের মধ্যে সংঘাত বাঁধতে দেখা গিয়েছে। কখনো রাজ্যের সিদ্ধান্ত এবং পদক্ষেপের কড়া সমালোচনা করছেন রাজ্যপাল, তো কখনো আবার রাজ্যপালের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তাকে পাল্টা আক্রমণ করছেন রাজ্য সরকার। রাজনৈতিক মহলে এই চিত্র অনেকটাই সুপরিচিত। কখনো সোশ্যাল মিডিয়ায়, আবার কখনো সরাসরি পত্রের মাধ্যমে একে অপরের প্রতি ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তারা।

সম্প্রতি, আবারও রাজ্য এবং রাজ্যপালের সংঘাত প্রকাশ্যে এল। বুধবার নিজের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে দুটি টুইট করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। বিষয়, প্রধানমন্ত্রী কিষান যোজনা থেকে রাজ্যের কৃষকদের বঞ্চিত রাখা। মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি রাজ্যপালের অভিযোগ, দেশের প্রতিটি রাজ্যের কৃষকেরা কেন্দ্রের এই যোজনা থেকে লাভবান হচ্ছেন। একমাত্র পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীই এই যোজনা প্রত্যাখ্যান করেছেন। এর ফলে পশ্চিমবঙ্গের কৃষকেরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।

রাজ্যপালের দাবি, রাজ্যের কৃষকদের প্রতি অন্যায় করছেন মুখ্যমন্ত্রী। শুধুমাত্র রাজনীতি করার জন্য রাজ্যের কৃষকদের এভাবে কেন্দ্রীয় সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত রাখা খুবই অন্যায় এবং অনুচিত কাজ। এদিনের টুইট বার্তায় রাজ্যপাল প্রধানমন্ত্রী কিষান যোজনা সম্পর্কে মুখ্যমন্ত্রীকে তার সিদ্ধান্ত বদলানোর পরামর্শও দিয়েছেন। নবান্নের তরফ থেকে অবশ্য, রাজ্যপালের এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এখনো পর্যন্ত কোনো উত্তর দেওয়া হয়নি।

উল্লেখ্য, এর আগেও বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে রাজ্য সরকারের সমালোচনা করেছেন রাজ্যপাল। কখনো তিনি রাজ্যের শিক্ষাব্যবস্থার অস্বচ্ছতার প্রতি অভিযোগ তুলেছেন, আবার কখনো করোনা মহামারীর মোকাবিলায় তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন। পরিযায়ী শ্রমিক প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর উদাসীনতা সম্পর্কেও সরব হতে দেখা গেছে তাকে। বিভিন্ন কারণ নিয়ে রাজ্যের বিরোধিতা করার দরুন তাকে অবশ্য কট্টর বিজেপিবাদী হিসেবে কটাক্ষ করতেও ছাড়েন না তৃণমূলের কর্মী সমর্থকরা।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন