প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানের সুদর্শন “চায়ওয়ালা”, মনে আছে আপনার? এখন সে কি করছে দেখুন

বছর চারেক আগে সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়েছিল আরশাদ নামক এক সুদর্শন চাওয়ালার ছবি। তখন তিনি পাকিস্তানের ইসলামাবাদে চা বিক্রি করতেন। সবার কাছে তিনি চাওয়ালা নামে পরিচিত ছিল। কিন্তু হঠাৎ একদিন তার ভাগ্য বদলে যায় আশরাদের ছবি শেয়ার করা হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। আরশাদের নীল চোখ ও তার সুদর্শন চেহারা মানুষের মন জয় করে নিয়েছিল খুব সহজেই।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি ভাইরাল হওয়ার পর থেকে অনেক বিদেশী কোম্পানির তরফে মডেলিং করার অফার আসে তার কাছে। এবং সে ইতিমধ্যে অনেক নামীদামী বিদেশী সংস্থার হয়ে মডেলের কাজও করে ফেলেছেন। প্রায়ই মডেলিং এর ফটো সোশ্যাল মিডিয়া দেখা যায় আশরাদের এবং সবাই তার ফটো দেখে মন মুগ্ধ হয়ে যায় তার নীল চোখের গভীরতা ও সৌন্দর্য্যে।

View this post on Instagram

@arshadchaiwala.insta @kaximhasan

A post shared by Arshad Khan (@arshadchaiwala.insta) on

সবার প্রশ্ন হল এখন কি শুধু আরশাদ মডেলিং করতেই ব্যস্ত সে কি তার আগে জীবন ভুলে গিয়েছে! না সে কখনোই তার আগের জীবন ভুলে যায়নি। আশরাদ শত ব্যস্ততার মধ্যে থেকেও একটি ফাইভ স্টার হোটেলে তার নিজস্ব ক্যাফে গড়ে তুলেছে। সে তার আগের জীবনের কথা মাথায় রেখেই তার ক্যাফের নাম রেখেছ চাওয়ালা ক্যাফে রুফটপ।

আশরাফের ক্যাফে চাওয়ালা ক্যাফে রুফটপে নানা ধরনের কফি ও স্যন্কস জাতীয় খাবার পাওয়া যায়। তার ক্যাফের প্রধান আকর্ষণীয় পানীয় হলো চা। এছাড়াও তার ক্যাফেতে মোট পনেরো কুড়ি ধরনের চা পাওয়া যায়। আশরাদ তার চাওয়ালা ঐতিহ্যকে এখনো ধরে রেখেছে, সে ভুলে যায়নি তার আগে জীবনকে। অনেকেই তাকে বলেছিলেন আশরাদ নামে যেন তার ক্যাফের নাম রাখা হয়। কিন্তু সে রাজি হননি, আশরদ তাদেরকে বলেছিলেন, আমার জীবনে প্রথম পেশা হলো চা বিক্রি করা। অর্থাৎ আমি একজন চাওয়ালা সেটাকে আমি কখনোই ভুলতে পারবনা। আমি সারাজীবন এই ঐতিহ্যেকে ধরে রাখতে চাই এবং সবার কাছে চাওয়ালা হয়ে থাকতে চাই।