খোদ মুখ্যমন্ত্রীর ফোনের অডিও ফাঁস, নন্দীগ্রামের বিজেপি নেতার সাহায্য চেয়ে আর্জি

প্রথম দফার বিধানসভা নির্বাচনের দিনেই রাজ্যের রাজনীতিতে এক নতুন বিতর্ক মাথাচাড়া দিয়ে উঠলো। বিশিষ্ট সংবাদমাধ্যম ক্যালকাটা নিউজ নেটওয়ার্ক সম্প্রতি প্রকাশ করেছে একটি অডিও। যে অডিওতে খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিজেপি নেতা প্রলয় পালের কাছে ভোটে সাহায্যের আবেদন চাইতে শোনা গেল! উল্লেখ্য, এই খবরের সত্যতা অবশ্য যাচাই করেনি সংশ্লিষ্ট সংবাদমাধ্যম।

বিজেপির তমলুক সাংগঠনিক জেলার সহ-সভাপতি প্রলয় পালের কাছে সাহায্যের আবেদন চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী। এমনটাই শোনা যাচ্ছে ওই অডিওতে। প্রসঙ্গত, তমলুক সাংগঠনিক জেলার মধ্যেই পড়ছে নন্দীগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রটি। যে কেন্দ্রে তৃণমূলের প্রাক্তন সদস্য শুভেন্দু অধিকারী এবং খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুখোমুখি। ফলে স্বভাবতই এই কেন্দ্রটির প্রতি রাজনৈতিক মহলের এক আলাদাই আকর্ষণ রয়েছে।

ভোট শুরু হওয়ার পরমুহূর্তেই ওই বিজেপি নেতা এই অডিওটি ফাঁস করেছেন। তার দাবি, খোদ মুখ্যমন্ত্রীই তাকে ফোন করেছেন। এই রেকর্ডের মহিলাকণ্ঠকে বলতে শোনা যাচ্ছে, “এইবার আমাদের একটু সাহায্য করে দাও। কথা দিচ্ছি তোমার কোনো অসুবিধা হবে না।” এর জবাবে পুরুষ কন্ঠের (প্রলয় পালের দাবি তিনি নিজেই কথা বলছেন) জবাব, বিজেপি দলের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করতে পারবেন না তিনি।

মহিলাকণ্ঠকে বলতে শোনা গেল, এখনকার যে বিজেপি নেতারা রয়েছেন তারা কি সৎ? তার জবাবে পুরুষ কন্ঠের বক্তব্য, তিনি মনে করেন তারা সকলেই সৎ। পাশাপাশি অধিকারী পরিবারের প্রসঙ্গও উঠেছে এই কথোপকথনে। পুরুষ কন্ঠের দাবি, অধিকারী পরিবার সাধারণ মানুষের রক্ষাকর্তা। তাই শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে তিনি কিছু করতে পারবেন না। তবুও মহিলা কন্ঠের আর্জি, “একটু ভেবে দেখো”। বিধানসভা নির্বাচনের প্রেক্ষাপটে ফাঁস হওয়া এই রেকর্ড নিয়ে স্বভাবতই রাজনৈতিক মহলে জোর তরজা শুরু হয়েছে।