বিজেপিতে মোহভঙ্গ, গ্রাম পঞ্চায়েত ফের দখল করল তৃণমূল

142
বিজেপিতে মোহভঙ্গ, গ্রাম পঞ্চায়েত ফের দখল করল তৃণমূল

কোচবিহারঃ তৃণমূল ফের দখলের করল আরও একটি গ্রাম পঞ্চায়েত। বৃহস্পতিবার মাথাভাঙ্গার হাজরার হাট ১ নং গ্রাম পঞ্চায়েতের দলছুট তৃণমূল পঞ্চায়েত প্রতিনিধিরা ফের তৃনমূলে ফিরে আসায় ওই গ্রাম পঞ্চায়েতটি তৃণমূলের দখলে আসে। লোকসভা নির্বাচনে কোচবিহার কেন্দ্রে পরাজিত হয় তৃণমূল কংগ্রেস।

এরপরেই জেলা জুড়ে বিভিন্ন গ্রাম পঞ্চায়েত গুলি বিজেপিতে যাওয়ার হিড়িক পরে যায়। কিন্তু মাস তিনেক যাওয়ার পরেই নবাগতরা পদ্ম শিবিরে গিয়ে তেমন গুরুত্ব না পাওয়ায় ফের তৃনমূলে ফিরতে শুরু করে। যদিও দলছুটদের দাবী, ভক্তিতে নয়, ভঁয়েই তাঁরা বিজেপিতে যেতে বাধ্য হয়েছে।

বৃহস্পতিবার নবাগত ওই গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন তৃণমূল কংগ্রেসের কোচবিহার জেলা সভাপতি বিনয়কৃষ্ণ বর্মণ। এইদিন ওই গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্যরা তৃনমূলে ফিরে আসায় মাথাভাঙ্গার এই গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় দল শক্তিশালী হল ওই এলাকায় বলে দাবী তৃণমূল নেতৃত্বের।

তৃণমূল কংগ্রেসের কোচবিহার জেলা সভাপতি বিনয়কৃষ্ণ বর্মণ জানান, “লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি কিছুটা ভালো ফল করায় গ্রামীণ স্তরে ব্যপক সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরি হয়। সেই সন্ত্রাসের কবলে পরেই জীবন রক্ষার তাগিদে সাময়িক ভাবে বিজেপিতে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছে এরা।

এইদিন দলছুট গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যরা তৃনমূলে ফিরে আসায় খুশির আবহাওয়া তৈরি হয় ঘাস ফুল শিবিরে। এইদিন পুনরায় প্রধান রিম্পা বর্মন সহ সাতজন ওই গ্রাম পঞ্চায়েতরে পঞ্চায়েত সদস্য তৃনমূলে যোগদান করে। ১৩ আসন বিশিষ্ট এই পঞ্চায়েতে তৃণমূল কংগ্রেস আসন পায় ১১ টি, বিজেপি পায় ২টি।

এই ১১ জন তৃণমূল কংগ্রেসের পঞ্চায়েত সদস্যের মধ্যে গত জুলাই মাসে সাতজন তৃণমূল কংগ্রেসের পঞ্চায়েত সদস্য বিজেপিতে যোগদান করেন। আজ পুনরায় তৃণমূল কংগ্রেসের যোগ দিয়ে প্রধান রিম্পা বর্মন বলেন, আতঙ্কে বিজেপিতে যেতে বাধ্য হয়েছিলাম, কিন্তু আবার নিজের ঘরের ফিরে এসেছি, এখন ভালো লাগছে।

মন্ত্রী বিনয় কৃষ্ণ বর্মন বলেন, লোকসভা নির্বাচনের পরে বহু গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যদের ভয়-ভীতি দেখিয়ে তাদের দলে টানার চেষ্টা করে বিজেপি। ধীরে ধীরে পুনরায় ওই সদস্যরা আবার তৃণমূলে যোগদান করছে। এসব করে বিজেপি বেশিদূর এগোতে পারবে না বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

এদিন এই দল বদলকে কেন্দ্র করে অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে তার জন্য মাথাভাঙার মহকুমা পুলিশ আধিকারিক শুভেন্দু মন্ডল, মাথাভাঙ্গা থানার আইসি প্রদীপ সরকারের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন ছিল। তবে শান্তিপূর্ণভাবেই শেষ হয় এই দল বদলের প্রক্রিয়া। হাজরাহাট ১ নং গ্রাম পঞ্চায়েত তৃণমূল কংগ্রেস ফের দখলের করার পর তৃণমূল কর্মীদের বিজয় উল্লাস হয় এলাকায়।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন