বাঙালির সুস্বাদু রান্নায় পড়ছে ওয়াইনের ফোঁটা, বিশ্বাস না হলে পড়েই দেখুন

কথাতেই আছে ভাতে মাছে বাঙ্গালী , কথাত বাঙ্গালীদের রান্না ধরণ অন্যান্য সবার থেকে আলাদা। বাঙ্গালীদের রান্নার ব্যাপারে এক অদ্ভুত ব্যাপার রয়েছে যা হয়তো অন্য কোথাও নেই। বাঙালিরা সবসময় তেলে ঝোলে খেতে ভালোবাসেন। একথাও ঠিক বাঙ্গালীদের কাছে রান্নার অনেক ধরনের রয়েছে যা হয়তো অন্য কারো কাছে নেই। তবে কখনো কি শোনা গিয়েছে বাঙালি রান্নায় ওয়াইনের ব্যবহার। এরকম সত্যি ঘটেছে এক সেফের হাত ধরে।

সেইফ শরদ দেওয়ান (রিজিওনাল ডিরেক্টর, ফুড প্রোডাকশন, দ্য পার্ক কলকাতা) তিনি এই কাণ্ডটি করেছেন বাঙালি রান্নায় ব্যবহার করেছেন যা হয়ত কল্পনাতেও ভাবা যায়না। ফিউশন খাবার পুজিতে বাইন ব্যবহার করা হয় খাবারের স্বাদ বাড়ানোর জন্য। কিন্তু বাঙালি রান্নায় ওয়াইন এ কথা হয়তো কেউই কল্পনাতেও ভাববে না।

তবে সেইফ শরদ দেওয়ান তার ভাবনা সম্বন্ধে বলেছেন, বাঙালিরা নতুন রেসিপি ট্রাই করার জন্য সব সময় আগ্রহী হয়ে থাকে। তারওপর বাঙালি কলকাতার যুগলবন্দী হওয়ার ফলে আমি ভাবলাম এবার থেকে বাঙালি রান্না ওয়াইন ব্যবহার করলে বেশ ভালোই হবে। আমার দৃঢ়বিশ্বাস বাঙালিরা এই স্বাদ খুবই এনজয় করবেন। অর্থাৎ শেইফ দেওয়ান তাড়াতাড়ি বিভিন্ন বাঙালি রান্নায় ব্যবহার করতে চলেছে সেটা মোচা হোক কিংবা ইলিশ মাছ তবে সরষে ইলিশের স্বাদ কোন অংশেই কবে যাবেন না এমনটাই জানিয়েছেন তিনি। এছাড়াও এঁচোড়ের তরকারি থেকে পাঁঠার মাংস, এমনকি গোবিন্দভোগ চালের পায়েস ওয়াইনের ব্যবহার করে বাঙ্গালীদের অবাক করে চলেছেন।