দেশে কেউ বি’না চিকিৎসায় ভুগবেন না, সবাইকে স্বাস্থ্যবীমা দিতে ফের নতুন প্র’ক’ল্প কেন্দ্রের

এবার থেকে ভারতবর্ষে আর কেউ বিনা চিকিৎসায় কষ্ট পাবেন না। দেশের প্রায় 40 কোটি মানুষকে চিকিৎসা পরিষেবার আওতায় আনার জন্য এক নতুন স্বাস্থ্য পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করলো কেন্দ্রীয় সরকার। এই পরিকল্পনাকে বাস্তবায়িত করতে একুশটি বীমা কোম্পানিকে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের এই পাইলট প্রকল্প শুরুর জন্য সরকারের তরফ থেকে ন্যাশনাল হেলথ অথরিটি এবং ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

দেশের প্রায় 50 কোটি দরিদ্র পরিবারের মানুষকে প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনা সুবিধা দেওয়া হয়েছে। এই প্রকল্পের আওতায় প্রত্যেক পরিবার প্রায় 5 লক্ষ টাকার বীমা কভারেজ পেয়ে থাকেন। প্রায় 40 কোটি দেশবাসীকে এবার ‘পিএমজেএওয়াই ক্লোন কভার’ দেওয়া হবে সরকারের তরফ থেকে। অর্থাৎ যারা সরকারের কোনো চিকিৎসা কভারেজের আওতায় পড়ছেন না তারাই কেবল এই প্রকল্পের আওতায় আসতে পারবেন।

এই স্কিমের আওতায় প্রায় 50 কোটি দরিদ্র মানুষ ছাড়াও তিন কোটি মানুষকে রাজ্যে পৃথক পৃথক স্কিমের আওতায় আনা হয়েছে। ১৫-১৭ কোটি মানুষকে এই মুহূর্তে ECHS, ESCI, CGHS কেন্দ্রীয় প্রকল্পের আয়তায় আনা হয়েছে। যদিও এই মুহূর্তে দেশে প্রায় 14 কোটি মানুষ তাদের নিজস্ব ব্যয়ে বেসরকারি কোম্পানিতে বীমা নেওয়ার পথ বেছে নিয়েছেন।

তার পরেও অবশ্য দেশের অন্তত 40 কোটি মানুষ চিকিৎসাব্যবস্থার আওতা থেকে বাইরে থাকেন। তাদের কথা ভেবেই এবার চিকিৎসা বীমার জন্য সরকারি স্কিমের সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। বিশেষত এই করোনার পরিস্থিতিতে চিকিৎসা বীমা না থাকার কারণে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে মানুষকে। তাই এবার ম্যাক্স বুপা হেলথ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড, রয়েল সুন্দরম জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড এবং অনেক বড় বড় কোম্পানিকে একত্রিত করে নতুন বীমা পরিকল্পনা শুরু করলো কেন্দ্রীয় সরকার।