শুধু জনপ্রিয়তা পাওয়ার জ’ন্য মামলা! জুহিকে ২০ লক্ষ টা’কা জরিমানা করলো দিল্লি হাইকোর্ট

বর্তমান উন্নত প্রযুক্তির যুগ এখন ৫ জির যুগ হয়ে উঠেছে। ইন্টারনেটের স্পিড যত বাড়বে, পরিবেশ এবং বাস্তুতন্ত্র ততো বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে! ৫জি পরিষেবার দরুন সমস্ত প্রাণী জগৎ বিপদের মুখে পড়বে! সম্প্রতি এই মর্মে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছিলেন অভিনেত্রী জুহি চাওলা। তবে আদালতে তাঁর অভিযোগ ধোপে টিকল না। উপরন্তু ভুল তথ্য ছড়ানোর দায়ে ২০ লক্ষ টাকা জরিমানা হলো অভিনেত্রী বিরুদ্ধে।

আদালতে ঠিক কি অভিযোগ করেছিলেন জুহি? ৫জি পরিষেবার ক্ষয়ক্ষতি নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন জুহি এবং দুই স্বেচ্ছাসেবী বীরেশ মালিক এবং টিনা বচনি। তাদের অভিযোগ ছিল, ৫জি টেলিকম প্রযুক্তির তেজস্ক্রিয় বিকিরণ পরিবেশ এবং বাস্তুতন্ত্রের ক্ষতি করতে পারে! আগামী দিনের এই পরিষেবা বাস্তবায়িত হলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে জীবজগৎ। তবে আদালতে এই মামলায় কিছু অসংগতি ধরা পড়েছে। যে কারণে মামলাটি নাকচ হয়ে যায় দিল্লির হাইকোর্টে।

দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতিদের রায় অনুসারে, অপ্রয়োজনীয়’ এবং অযৌক্তিক তথ্যের ওপর ভিত্তি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে আদালতে। মামলাটি যারা করেছেন, তারাও নিজেদের অভিযোগের বিষয়বস্তু সম্পর্কে সঠিকভাবে জানেন না। এই মর্মে আদালতে মামলাটি নাকচ হয়ে যায়। তবে জনপ্রিয়তা পাওয়ার জন্য জুহি চাওলাকে জরিমানা করে আদালত।

জহির বিরুদ্ধে আদালতের অভিযোগ ২রা জুন দিল্লি হাইকোর্টে তরফ থেকে যে ভার্চুয়াল শুনানির ব্যবস্থা করা হয়েছিল, তা আগেভাগেই নেট মাধ্যমে শেয়ার করে দেন অভিনেত্রী। আদালতের রায় অনুসারে, পরিবেশের কথা ভেবে নয়, অভিনেত্রী কার্যত নিজের প্রচার পাওয়ার জন্যই এই অভিযোগ দায়ের করেছেন! তাই জুহি চাওলাকে ২০ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।