খুবই খারাপ পরিস্থিতি, প্র’তি ৫ মিনিটে মৃ’ত্যু হ’চ্ছে একটি শিশুর

সৌদি নেতৃত্বাধীন আরব জোটের আগ্রাসন ও অবরোধের কারণে ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছে ইয়েমেন। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে প্রতিদিন প্রায় হাজার হাজার শিশু ওই দেশে অপুষ্টির শিকার হয়ে মারা যাচ্ছে। তাদের চিকিৎসা করার মতো উপযুক্ত চিকিৎসা পরিকাঠামো নেই ইয়েমেনে। বহু হাসপাতাল ধ্বংস প্রাপ্ত হয়েছেন। শিশু এবং নারীরা এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির শিকার হচ্ছেন সবথেকে বেশি।

সম্প্রতি অন্তত আট হাজার নারী মারা গিয়েছেন ইয়েমেনে এবং প্রায় ২ কোটি ৬০ লাখ শিশু এখন অপুষ্টির শিকার বলে জানা গিয়েছে। একটি প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে যে ইয়েমেনে ৩ হাজারেরও বেশি শিশু নানা ধরণের শারীরিক সমস্যা নিয়ে জন্মগ্রহণ করে। এদের মধ্যে বেশির ভাগেরই শরীরে হার্টের সমস্যা রয়েছে।

ইয়েমেনের একজন প্রবীণ চিকিৎসক জানালেন, এই মুহূর্তে দেশের যা পরিস্থিতি সেখানে ৫০০ রোগীর লিভার প্রতিস্থাপন করা অবিলম্বে প্রয়োজন। ২ হাজার রোগীর কর্নিয়াল ট্রান্সপ্লান্ট অবিলম্বে প্রয়োজন বলে তিনি জানিয়েছেন। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে চিকিৎসা পরিকাঠামোর অভাবে তেমনটা সম্ভব হচ্ছে না। এদিকে ইয়েমেনে বর্তমানে মোট ৫২৭টি হাসপাতাল সম্পূর্ণ কিংবা আংশিক ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়েছে।

ইয়েমেনের মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জানাচ্ছেন প্রতি ৫ মিনিটে কমপক্ষে একজন শিশু মারা যাচ্ছে সেই রাষ্ট্রে। যুদ্ধবিধ্বস্ত ইয়েমেনে সৌদি আগ্রাসনের কারণে দুই লক্ষেরও বেশি মানুষ ইতিমধ্যেই মারা গিয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে। উপযুক্ত চিকিৎসা পরিকাঠামোর অভাবে ভবিষ্যতে আরো অনেক শিশু নারী এবং মানুষের মৃত্যু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এমনই ভয়ঙ্কর তথ্য তুলে ধরছে ওই প্রতিবেদন।