যোগীর রা’জ্যে পঞ্চায়েত ভো’টে জয়জয়কার গেরুয়া শি’বি’রে’র, ৭৫-এর ম’ধ্যে জয়লাভ ৬৫ টিতে

উত্তরপ্রদেশে আবার ব্যাপক সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করল বিজেপি। উত্তর প্রদেশের পঞ্চায়েত অধ্যক্ষ নির্বাচনের ফলাফল সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে। সেখান থেকেই জানা গেল যে, উত্তরপ্রদেশের পঞ্চায়েত নির্বাচনের জন্য ৭৫টি আসনের মধ্যে থেকে লড়াইয়ে বিজেপি ৬৭টি আসন জিতে নিয়েছে। মোট ৫৩টি আসনের পঞ্চায়েত নির্বাচন হয়েছে শনিবার। এছাড়া বাকি ২২টি আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অধ্যক্ষ নির্বাচিত হয়েছেন প্রতিদ্বন্দ্বীরা।

এই ২২টি আসনের মধ্যে ২১টি আসনে বিজেপির প্রার্থী আর ১টি আসনে সমাজবাদী পার্টির প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়লাভ করে নিয়েছেন। আজ প্রকাশিত ভোট গণনার ফলাফল অনুসারে বিজেপি ৬৭, সমাজবাদী পার্টি ৫টি আসনে জয়লাভ করেছে। অন্যান্যরা ৩টি আসনে জয়লাভ করেছে বলে জানা গিয়েছে। উত্তর প্রদেশের সাহারানপুর, বহরাইচ, ইটাওয়া, চিত্রকূট, আগরা, গৌতমবুদ্ধ নগর, মেরথ, গাজিয়াবাদ, বুলন্দশহর, অমরোহা, মুরাদাবাদ, ললিতপুর, ঝাঁসি, বান্দা, শ্রাবস্তি, বলরামপুর, গোন্দা, গোরক্ষপুর, মৌ, বারাণসী, পিলিভিত, শাহজাহানপুর জেলা পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রার্থীরা জিতে গিয়েছেন।

সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদব অবশ্য ফলাফল প্রকাশের পর বিজেপির বিরুদ্ধে নির্বাচনে অগণতান্ত্রিক উপায় ব্যবহার করার অভিযোগ তুলেছেন। বিজেপির রাজ্য সভাপতি স্বতন্ত্র দেব সিং অবশ্য সমাজবাদী পার্টির প্রধানকেই পাল্টা কটাক্ষ করেছেন। তার পাল্টা কটাক্ষ, অখিলেশ যাদব যে গণতন্ত্রের দোহাই দিচ্ছেন তা তাকে শোভা দেয় না।

উত্তর প্রদেশে জেলা পঞ্চায়েত অধ্যক্ষ পদের নির্বাচনের জন্য গত শনিবার সমস্ত ৭৫ জেলার প্রার্থীরা নিজেদের মনোনয়ন জমা দেন। ২২ টি জেলায় কেবল একজন করেই প্রার্থী দেওয়া হয়েছে। যে কারণে নির্বিবাদে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে যান তারা। সমাজবাদী পার্টির রাজ্য সভাপতি নরেশ উত্তম শনিবার ১১ জেলার দলের সভাপতিকে নিজের পদ থেকে সরিয়ে দেন।