ব্রেকিং: পশ্চিমবঙ্গে ভোট পরবর্তী হিং’সা নিয়ে রাজ্য সরকারকে নো’টি’শ পা’ঠা’লো শী’র্ষ আদালত

ভোট-পরবর্তী হিংসা সংক্রান্ত বিষয়ে তদন্ত চালানোর জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে নোটিশ জারি করলো উচ্চ আদালত। বাংলায় ভোট পরবর্তী হিংসা সংক্রান্ত তদন্তের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্ট শুনানিতে আজ এই নোটিশ জারি করে। অবশ্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পক্ষ বানানো হলেও তার প্রতি কোনো নোটিশ জারি করা হয়নি বলে জানা যাচ্ছে। আজ সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি বিনীত শরণের নেতৃত্বাধীন সাংবিধানিক বেঞ্চ কেন্দ্র আর বাংলার সরকারকে ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে নোটিশ জারি করেছে।

কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকার ছাড়াও নির্বাচন কমিশনকেও নোটিশ জারি করেছে সুপ্রিম কোর্ট। প্রসঙ্গত, লখনউ-এর আইনজীবী রঞ্জনা অগ্নিহোত্রী বাংলার ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি তুলে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন। সেই মামলার পরিপেক্ষিতেই কার্যত কেন্দ্র আর রাজ্য সরকারকে নোটিশ জারি করা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।

প্রসঙ্গত একুশের বিধানসভা নির্বাচনের পরে রাজ্যজুড়ে যে ভোট পরবর্তী হিংসা শুরু হয়েছে তার পরিপ্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্টে একাধিক মামলা দায়ের করা হয়েছে। এদিকে আবার গোটা দেশের ২ হাজারের বেশি মহিলা আইনজীবী সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিকে চিঠি লিখে বাংলায় ভোট পরবর্তী হিংসার পর নারী নির্যাতনের মামলা দায়ের করেছেন বলেও জানা যাচ্ছে।

দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোভিন্দকে চিঠি লিখে বাংলার হিংসা সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে জানিয়েছেন। কিছুদিন আগেই ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং কমিটির সাত সদস্যের রিপোর্ট জমা পড়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে। ওই রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে যে বাংলার ভোট পরবর্তী হিংসায় ৭ হাজারের বেশি মহিলা আক্রান্ত হয়েছেন। হিংসার জেরে রাজ্যের ১৫টি জেলা ক্ষতিগ্রস্ত বলে উল্লেখ করা হয়েছে ওই রিপোর্টে।