নুসরাতের বি’য়ে নি’য়ে বি’বৃ’তি’তে বি’ব্র’ত অভিনেত্রী, সোশ্যাল মিডিয়া জু’ড়ে মিমের ছ’ড়া’ছ’ড়ি

“একদিন আমিও বড়লোক হব আর এমন খরচা করে সেজেগুজে লিভ ইন করব” নুসরতের বিবৃতির সমালোচনার ঝড় ইনস্টাগ্রাম এবং ফেসবুকের পাতায়!

অভিনেত্রী নুসরত জাহান এর ‘অবৈধ বিয়ে’-র ছবি, ভিডিয়ো ফেসবুক জুড়ে;নুসরতের বিবৃতি আরও বিপাকে ফেলল তাঁকে?। সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড় বয়ে গিয়েছে। নিখিল জৈন এবং নুসরত জাহান ১৯ জুন ২০১৯ সালে তুরস্কে ঘটা করে বিয়ের অনুষ্ঠান করেছিলেন। কিন্তু সময় বদলাল। বদলে গেল সম্পর্কের নাম। বুধবার বিবৃতি জারি করে সাংসদ-অভিনেত্রী জানালেন, নিখিলের সঙ্গে আদৌ তাঁর বিয়ে হয়নি। কারণ তাঁদের বিয়ের অনুষ্ঠান তুরস্কের আইন অনুযায়ী অবৈধ।

নিজের নামের পাশে এক সময় ‘জৈন’ জুড়ে নেওয়ার পরেও নিখিলের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ককে ‘সহবাস’-এর তকমা দিয়েছেন নুসরত।স্বাভাবিক ভাবেই নেটমাধ্যমে ট্রোলিং, কটাক্ষে ঘৃতাহুতি করেছে নুসরতের এই বিবৃতি। সমালোচনার ঝড় বয়ে গিয়েছে তাঁর ইনস্টাগ্রাম এবং ফেসবুকের পাতায়।

অভিনেত্রী নুসরত ইতিমধ্যেই ‘সহবাস সঙ্গী’ নিখিলের সঙ্গে সব ছবি সরিয়ে দিয়েছেন। তবে দ্বিতীয়টিতে এখনও জ্বলজ্বল করছে ‘বিয়ে’ থেকে শুরু করে তাঁদের ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের একাধিক ছবি। সেখানে গিয়েই নিজেদের রাগ, ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন নেটাগরিকদের একাংশ।

কেউ কেউ আবার কটাক্ষ করেছেন ব্যঙ্গের সুরে। সেই কারণেই প্রায় ২ বছর আগে পোস্ট হওয়া তুরস্কে তাঁদের ‘বিয়ে’-র অনুষ্ঠানের ভিডিয়ো নতুন করে ঘুরপাক খাচ্ছে নেটমাধ্যমে। কেউ লিখেছেন, ‘এত খরচ করে লিভ ইন। আমরা তা হলে বোকা হলাম ২ বছর ধরে।’ শুধু তাই নয়; অনেকে আবার লিখেছে ‘একদিন আমিও বড়লোক হব আর এমন খরচা করে সেজেগুজে লিভ ইন করব।’