অনলাইন জা’লি’য়া’তি রুখতে ও টা’কা নি’রা’প’দে রাখতে হেল্পলাইন ন’ম্ব’র চা’লু করলো কেন্দ্র

Digital Payment এর প্রতি মানুষের আগ্রহ যত বাড়ছে, মানুষ যত অনলাইনে পেমেন্টের পথে ঝুঁকছেন ততই যেন অনলাইন প্রতারণার হারও বাড়ছে। এই অনলাইন প্রতারণা রুখতে এবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করলো। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে সম্প্রতি বিশেষ একটি হেল্পলাইন নম্বর চালু করা হয়েছে। অনলাইন প্রতারণা সংক্রান্ত যাবতীয় অভিযোগ এই হেল্পলাইন নাম্বারে জানাতে পারবেন দেশবাসী।

সম্প্রতি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে জারি করা একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, সাধারণ মানুষের কষ্টের টাকা যাতে কোনভাবে প্রতারকদের কাছে চলে না যায় তার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে নতুন হেল্পলাইন নম্বর ও রিপোর্টিং প্লাটফর্ম চালু করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের নেতৃত্বে এই হেল্পলাইন নম্বর এবং রিপোর্টিং প্লাটফর্ম চালু করা হলো যাতে ডিজিট্যাল প্লাটফর্মে লেনদেনের ক্ষেত্রে গ্রাহকদের সুরক্ষা দেওয়া যায়।

পয়লা এপ্রিল থেকেই এই হেল্পলাইন নম্বর এবং রিপোর্টিং প্লাটফর্ম চালু হয়ে গিয়েছে বলে জানানো হয়েছে। 155260 হেলপ্লাইন নম্বরে ফোন করে মানুষ তাদের অভিযোগ জানাতে পারেন। রিপোর্টিং প্ল্যাটফর্মটি ভারতীয় সাইবার ক্রাইম কো-অর্ডিনেশন সেন্টার, রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া, দেশের সমস্ত বড় ব্যাঙ্ক, পেমেন্ট ব্যাঙ্কের সমর্থন এবং সহযোগিতায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের অধীনে চালু করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

ছত্তিশগড়, দিল্লি, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, তেলঙ্গানা, উত্তরাখণ্ড এবং উত্তর প্রদেশে এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গুলিতে চালু করা হয়েছে এই প্লাটফর্ম এবং হেল্পলাইন নম্বর। দেশের প্রায় ৩৫ শতাংশের বেশি মানুষ এই প্লাটফর্ম এবং হেল্পলাইন নম্বরের সুবিধা নিয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে। এই হেল্পলাইন নম্বর মারফত ২ মাসের মধ্যেই ১.৮৫ কোটি টাকারও বেশি জালিয়াতি আটকানো সম্ভব হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। প্রতারণার শিকার হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই যদি হেল্পলাইন নম্বর অথবা রিপোর্টিং পোর্টালে অভিযোগ দায়ের করেন তাহলে প্রতারকেরা সেই টাকা তুলতে পারবে না।