আজব বিয়ের রী’তি, বরকে বি’য়ে’র পর করা হয় মা’র’ধ’র! একমাস কা’ন্না করে কনে, জানলে অবাক হবেন

ফ্রান্সের পলিনেশিয়ায় বিয়ের পর বর এবং কনে পক্ষের আত্মীয়রা মেঝেয় শুয়ে পড়েন।তাঁদের উপর দিয়েই নবদম্পতিকে যেতে হয়। এমনকি অনেক ক্ষেত্রে বরকে মারধর থেকে একমাস ধরে কনের কান্না;বিয়ের এসব আজব প্রথা অবাক করবে আপনাকে । আমাদের এই ভারতীয় বিয়েতে জুতো চুরির রীতি রয়েছে। কেউ ঘোড়ায় চড়ে বিয়ে করতে যান, কেউ বা পালকিতে চড়ে। বাঙালি বিয়েতে পান পাতা দিয়ে মুখ ঢেকে বিয়ের আসরে যান কনে। ভৌগলিক সীমারেখা পালটালেই পালটে যায় বিয়ের নিয়ম। গতে বাঁধা কিছু নিয়ম অনেকেরই জানা। তবে এমন কিছু অদ্ভূত নিয়মও রয়েছে, যা জানলে চক্ষু জোড়া কপালের চড়কগাছে উঠতেই পারে।

আফ্রিকা মরিটানিয়াতে বিয়ের আগে কনেকে মোটা হতে হয়। বিশ্বাস করা হয়, এতে সংসারে সুখ ও সমৃদ্ধি আসে। তাই কনেকে ওজন বাড়াতে ‘ফ্যাট ফার্মে’ যেতে হয়। সেখানে ওজন বাড়াতে গিয়ে আবার অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েন। কিন্তু বিয়ে করতে গেলে সকলে ‘ফ্যাট ফার্মে’ নাকি যেতেই হয়।

দক্ষিণ কোরিয়ায় পাত্র কতটা উপযুক্ত তা পরখ করে দেওয়া হয়।ফুলশয্যার রাতের ঠিক আগেই বরের পায়ের তলায় মাছ বা বাঁশের কঞ্চি দিয়ে পেটানো হয়। এভাবেই তাঁর পুরুষত্ব পরীক্ষা করা হয়।

স্কটল্যান্ডে নাকি নব দম্পতির মাথায় আবর্জনা ঢালার নিয়ম আছে। হ্যাঁ, বিয়েরদিনই যাবতীয় নোংরা ঢালা হয় বর ও বউকে পাশাপাশি বসিয়ে। চিনের তুজিয়া সম্প্রদায়ের কনেরা বিয়ের এক মাস আগে থেকেই কাঁদতে শুরু করেন। তাঁর পরিবারের বাকি মহিলারাও এই বিলাপে যোগ দেন।