নয়া বি’ত’র্ক, অন্তঃসত্ত্বা নুসরতের বি’রু’দ্ধে মা’ম’লা করলেন স্বামী নিখিল জৈন

বেশ কিছুদিন হল নুসরাত জাহানের সন্তানসম্ভবা হওয়া নিয়ে যে গুজব ছড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে, তা নিয়ে সরগরম নেট দুনিয়া। এই সন্তান যে তার প্রাক্তন স্বামী নিখিলের নয় তা বোঝাই যাচ্ছে। দীর্ঘদিন তারা এক ছাদের তলায় থাকে না। তাহলে এই সন্তান কার? অবশ্য যশ দাশগুপ্তের। বেশ কিছু মাস হলে তারা একসাথে লিভ ইন করছেন। সম্প্রতি এই প্রসঙ্গে মুখ খুললেন নিখিল জৈন। সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেছিলেন যে, নুসরাতের সঙ্গে আমার কোন সম্পর্ক নেই। দীর্ঘদিন আমরা একসাথে থাকি না। এই সন্তান যে আমার নয় তা বলাই বাহুল্য। আমি আমার জীবন এবং পরিবার নিয়ে খুব ভালো আছি। আমার পরিবারের মূল্যবোধ খুবই মূল্যবান আমার কাছে। আমি একজন সাধারন মানুষ এবং সাধারন ভাবেই থাকতে চাই।

সম্প্রতি আরেকটি খবর শুনতে পাওয়া গেছে যে, নিখিল জৈন নাকি অভিনেত্রী বিরুদ্ধে দেওয়ানী মামলা দায়ের করেছেন তার অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর পেয়ে। এই খবরটি আদৌ কতখানি সত্য তা এখনো পর্যন্ত জানা যায় নি। অন্যদিকে সন্তানসম্ভাবা হওয়া নিয়ে নুসরাত এবং যশ দাশগুপ্ত কেউই কোনো কথা বলেনি। তবে এই নিয়ে মুখ খুলেছেন নিখিল জৈন। তিনি আরো একবার সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন যে, তিনি যেদিন থেকে জানতে পেরেছেন যে নুসরাত তার সঙ্গে থাকতে চান না সেই দিনই তিনি নুসরাত এর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিলেন। অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার সঙ্গে কোনো রকম সম্পর্ক নেই এর।

এই মামলার শুনানি আগামী জুলাই মাসে এমনটাও জানা গেছে। যেহেতু ম্যারেজ রেজিস্ট্রেশন হয়নি তাই অ্যানালমেন্ট করে বিচ্ছেদ করতে চান নিখিল জৈন। সেই প্রেক্ষিতে নিয়ম অনুযায়ী, নুসরাতকে আদালতে গিয়ে অফিশিয়ালি জানাতে হবে যে, নিখিলের সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই। অন্যদিকে নিখিলের থেকেই নাকি জানা যায়, নুসরাতের জন্ম দেওয়ার সম্ভাব্য তারিখ চিকিৎসকরা দিয়েছেন ১০ সেপ্টেম্বর।