সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন

বিরাট চি’ন্তা’র বি’ষ’য়, মানুষের জন্য বাতাসে বি’ষা’ক্ত বা’য়ু মি’শে’ছে কয়েক কোটি টন

একটা সময় যখন রবীন্দ্রনাথ প্রশ্ন কবিতায় বিষাক্ত বায়ু ছড়ানোর কথা উল্লেখ করেছিল, তখন সেটা তেমন একটা গায়ে না লাগলেও এখন যেন প্রতিক্ষণে তা বুঝিয়ে দিচ্ছে। আজ একবিংশ শতক, যেখানে আমরা সবাই দাঁড়িয়ে।

তখন সেই রকম পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়নি মানুষকে, কিন্তু এখন তার সম্মুখে দাঁড়িয়ে সবাই। আর ঠিক একই প্রশ্ন সবার মুখে মুখে। আমরা সময়ের সাথে সাথে উন্নত হওয়ার লক্ষ্যে এগিয়ে গিয়েছি, যার কারণেই আমরা খুব সহজেই ভুলে গিয়েছি প্রকৃতিকে।

কিন্তু প্রকৃতি ছাড়া মানবজাতি টাই যে অচল সেটা আমরা সবাই জানি। সম্প্রতি বিশ্বে ছড়িয়ে পড়া গ্রীন হাউজ গ্যাস নিয়ে কথা হচ্ছিল রাষ্ট্রপুঞ্জের একটি প্যানেলে। কিভাবে গ্রীন হাউজ গ্যাস কমানো যায় সেই নিয়ে হচ্ছিল কথাবার্তা।

আরো পড়ুন: RRR রে’ক’র্ড ব্যবসা করলো বাংলা জু’ড়ে, ইতিমধ্যে KGF-2-র বুকিং হাউসফুল

কিন্তু যাকে বলে কেঁচো খুঁড়তে কেউটে, সম্প্রতি এই বিষয় নিয়ে আলাপ-আলোচনা মধ্যে National Oceanic and Atmospheric Administration এর দ্বারা একটি রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে, এখানে গ্রিন হাউজের বাড়বাড়ন্ত কতটা সেটা প্রকাশ হয়েছে।

তারা জানিয়েছে বিশ্বে মিথেনের বাড়বাড়ন্ত এখন অনেকটাই, যা আগামীতে দারুন চিন্তার বিষয়। রিপোর্টে জানা গেছে মানুষ মোট ৬৪০ মিলিয়ন টন মিথেন বাতাসে মিশিয়েছে।

১৯৮৩ সালের পর ২০২১ সালে এই প্রথম যেখানে সবথেকে বেশী মিথেনের বাড়বাড়ন্ত।এখানেই শেষ নয়, ঠিক একই সময়ে ৩৬ বিলিয়ন কার্বন ডাই অক্সাইড বাতাসে মিশেছে ।

আগে যেটা ছিল ১৫.৩ parts per billion সেটাই এখন দাঁড়িয়েছে ১৭ ppb। শিল্পের ঠেলায় আদিম সময়ের থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত মিথেনের পরিমাণ বেড়েছে ১৬২%।