২৬ তারিখ ফে’র আ’স’ছে বান, আগেভাগেই স’ত’র্ক করলেন মুখ্যমন্ত্রী

সম্প্রতি ইয়াসের দাপটের সম্মুখীন হতে হয়েছিল বাংলাকে। একদিকে ঘূর্ণিঝড়, অপরদিকে ভরা কোটাল এর জেরে জল স্তর বৃদ্ধি পাওয়াতে জল জমে অবরুদ্ধ হয়েছিল উপকূলবর্তী অঞ্চলগুলি। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে বন্যার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছিল। বন্যায় দুর্গতির চরম সীমায় পৌঁছেছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মানুষ। সেই রেশ কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই এবার আরেক প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সম্ভাবনার কথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মুখ্যমন্ত্রীর নবান্ন থেকে জানিয়েছেন যে আগামী ১১ এবং ২৬শে জুন পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে বান আসতে চলেছে। ১১ তারিখে নদীতে যে বান আসবে তার তুলনায় ২৬শে জুনের বান আরো বেশি ভয়াবহ বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে সতর্ক বার্তা পেয়ে পশ্চিমবঙ্গকে নিয়ে চিন্তিত মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যার জেরে তিনি আগেভাগেই রাজ্যবাসীকে সতর্ক করেছেন।

রাজ্যে বারংবার এভাবে কেন ঘূর্ণিঝড় এবং বন্যার মতো প্রাকৃতিক বিপর্যয় ঘটছে সে সম্পর্কে উদবিগ্ন হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এ সম্পর্কে খতিয়ে দেখার জন্য তিনি একটি বিশেষজ্ঞ কমিটির রায় চেয়েছেন। কল্যান রুদ্রের নেতৃত্বে ২৪ জন সদস্যের এই কমিটি বাংলার উপর বারংবার আছড়ে পড়া প্রাকৃতিক বিপর্যয় নিয়ে গবেষণা চালাবেন।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন নবান্নের প্রশাসনিক ভবনে বসে আসন্ন বিপদ সম্পর্কে সচেতন করেছেন প্রশাসন এবং রাজ্যবাসীকে। বন্যার পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার আগেই প্রশাসনকে সব রকমের ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।