বাইরে থে’কে অ’ন্য একজন হেয়ার ড্রেসার এ’নে’ছে’ন কৌশানি, স্থানীয় শিল্পীরা চ’টে লা’ল, শ্যুটিং ব’ন্ধ

দীর্ঘদিন লকডাউন এর ফলে আরো একবার তালা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল টলিউড এবং বলিউড ইন্ডাস্ট্রি। যে যার বাড়িতে বসেই শুটিং করছিলেন। সিরিয়ালের সেই ধারা যেন কোথাও স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিল। তবে পরিস্থিতি আরও একবার স্বাভাবিক হতে না হতেই সেই তালা খুলেছে। আরো একবার টাটকা এপিসোড দেখার সুযোগ পাচ্ছেন দর্শকরা। কিন্তু এর মধ্যে আচমকা আরো একবার বন্ধ হয়ে গেল শুটিং, কি সেই কারণ? না করোনা নয়, এবার শুটিং বন্ধ হয়ে গেল কৌশানী মুখোপাধ্যায় এর জন্য।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Koushani (@myself_koushani)

অভিনেত্রীর ওপর কলাকুশলীরা ক্ষুব্ধ হয়েছেন। একটি বিজ্ঞাপনের শ্যুটিং করতে এসেছিলেন অভিনেত্রী। শুটিং করতে এসে বাইরে থেকে হেয়ার ড্রেসার হায়ার করেছিলেন তিনি। সাধারণত ফেসিয়াল মেকআপ অথবা চুল সেটিং করা সবকিছুই স্পটে উপস্থিত থাকা শিল্পীরা করেন। কিন্তু অভিনেত্রী আচমকা এইভাবে বাইরে থেকে হেয়ার ড্রেসার আনার ফলে ক্ষুব্ধ হন উপস্থিত সকল শিল্পীর।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Koushani (@myself_koushani)

টলিউডের মেকআপ আর্টিস্টরা এতটাই ক্ষুব্দ হয়ে গিয়েছিলেন যে তারা বিক্ষোভ দেখালেন অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে, যার ফলে শুটিং বন্ধ হয়ে যায়। এই মুহূর্তে সরকারের নিয়ম অনুযায়ী ৫০ শতাংশ লোক দিয়ে কাজ করাচ্ছে টলিউড বলিউড। প্রত্যেকদিন এর পারিশ্রমিক তারা পাচ্ছেন না। অনেকেই বাড়িতে বসে রয়েছেন। এহেন অবস্থায় এই পদক্ষেপ নিঃসন্দেহে তাদের আরো বেশি রাগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Koushani (@myself_koushani)


কেন অভিনেত্রী এমন কাজ করেছেন তার সদুত্তর যদিও এখনও পাওয়া যায়নি, কিন্তু শিল্পীদের এই বিক্ষোভ নিঃসন্দেহে একটি বড় পদক্ষেপ বলে মনে করা যায়, প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে দিদির হাত ধরে রাজনীতিতে প্রবেশ করেছিলেন কৌশানি। দুর্ভাগ্যবশত মুকুল রায়ের কাছে হেরে যান তিনি। মুকুল রায় তৃণমূল ফিরে আসার পরে কৌশানি ও ফিরে গেছেন তার শুটিংয়ে।