দুর্গা মণ্ডপ ভাঙার পর এবার ইসকন মন্দিরে হা’ম’লা! আ’ত’ঙ্কে বাংলাদেশের সংখ্যালঘু হিন্দুরা

একের পর এক হামলায় বিপর্যস্ত বাংলাদেশের সংখ্যালঘু হিন্দুরা। দূর্গা মন্ডপ ভেঙে দেওয়ার পর এবার হামলা করা হলো ইসকনের মন্দিরে। শুক্রবার নোয়াখালীতে ইসকন মন্দিরে হামলা করা হয়। মন্দির পুড়িয়ে দেওয়া হয় এবং সেখানকার সমস্ত জিনিস ধ্বংস করে দেওয়া হয়। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে শেখ হাসিনা বলেন, যে এবং যারা এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন তাদের কাউকে ছাড়া হবে না।

গোটা ঘটনার বেশ কিছু ছবি এবং ভিডিও টুইট করে ঘটনাটি প্রকাশ এনেছেন ইসকন। ছবিতে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে, মৌলবাদীরা কি ভীষণ ভাবে অত্যাচার চালিয়েছে হিন্দুদের ওপর। লন্ডভন্ড অবস্থায় পড়ে রয়েছে পূজোর সমস্ত জিনিস। ঘটনায় আহত হয়েছেন বেশ কিছু হিন্দু গুরু, নিহত হয়েছেন একজন।

উল্লেখ্য, এতকিছুর পরেও আরো একবার হামলা করা হয় দুর্গা মন্ডপে। হাবিগঞ্জ জেলার মাদ্রাসার ছাত্ররা কোরানের অবমাননার প্রতিবাদে আন্দোলন করেছিলেন। এই আন্দোলন করতে করতে যখন তারা পৌঁছান এক পুজো মণ্ডপের সামনে, সেখানে হিন্দুদের সঙ্গে বচসা বাধে মুসলমানদের এবং মাদ্রাসার ছাত্ররা পূজামণ্ডপ ভেঙে দিয়ে চলে যায়।

অবিলম্বে এই সমস্ত ঘটনার প্রতিবাদ যদি না করা হয়, তাহলে অদূর ভবিষ্যতে আরও একটি দাঙ্গার দৃশ্য আমরা দেখতে পাব, সেটা হবে খুবই দুর্ভাগ্যজনক।