“দু-কান কা’টা-নি’র্ল’জ্জ, তৃণমূলে ফিরতে হলে মাথা নিচু করে ফিরতে হ’বে”, শোভন-বৈশাখিকে তো’প রত্নার

বাংলার রাজনীতিতে শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূলে ফেরার জল্পনা ফের দানা বেঁধেছে। সোমবার রাতে তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে শোভন-বৈশাখীর উপস্থিতি ঘিরে জোর চর্চা চলছে রাজ্য রাজনীতিতে। যদিও পার্থর সঙ্গে কোনও রাজনৈতিক আলোচনা হয়নি বলে দাবি করেছেন বৈশাখী।

তবে যেভাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসা শোনা গেল বৈশাখীর গলায়, তাতে তাঁদের তৃণমূলে প্রত্যাবর্তনের জল্পনা বেড়েছে। আর এ নিয়ে এবার শোভন-বৈশাখীকে একহাত নিলেন রত্না চট্টোপাধ্যায়। একটি বাংলা দৈনিকে সাক্ষাৎকারে রত্না বললেন, ‘এবার তৃণমূলে ফিরতে হলে মাথা নীচু করে ফিরতে হবে। রত্নাকে সঙ্গে নিয়ে তৃণমূল করতে হবে।এখন সবাই দলে ফেরার জন্য লাইন দেবেন। ভোটের মুখে তো ওঁরা অনেক কটূক্তি করেছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে যে কুৎসা করেছেন তাঁরা, আমার মনে হয় না, মমতা-অভিষেক এত তাড়াতাড়ি ভুলে যাবেন। তবুও ওঁরা দলে ফিরতে চাইলে সেটা দলীয় নেতৃত্বের সিদ্ধান্ত। এতে আমার বলার কিছু নেই’।

উল্লেখ্য,তৃণমূলে ফেরার জল্পনা প্রসঙ্গে এর আগে বৈশাখী বলেছিলেন, ‘রাজনীতি সম্ভাবনার শিল্প। আগামী দিনে কী করতে চলেছি,তা সকলেই জানতে পারবেন। শোভনবাবু একমাত্র নেতা, যিনি তৃণমূল ছড়ার পর দিনই BJP-তে যোগদান করেননি। তৃণমূল ছেড়েছিলেন আদর্শ-নীতির ভিত্তিতে। BJP-কে বেছেছিলেন। কিন্তু, সুষ্ঠু কাজ করার পরিবেশ পাননি, তাই সরে এসেছেন। শোভনবাবু সিদ্ধান্ত নেন নীতি আদর্শের ভিত্তিতে। শোভনবাবু আবেগের মানুষ। তাই তিনি যা সিদ্ধান্ত নেবেন, তাতে সমর্থন করব। মানুষের থেকে বিচ্ছিন্ন হচ্ছি না।’