চা বাগানের প্রত্যন্ত এলাকায় শিশুদের নিয়ে ক’রো’না’র তৃতীয় ঢে’উ’য়ে’র সতর্কতামূলক প্র’চা’র

লকডাউনের পর লকডাউন হয়েই চলেছে, সবাই যে যার মতন লড়ে চলেছে করোনা নামের মহামারীর সাথে, এসব থেকে গা বাঁচিয়ে একটু সুস্থ ভাবে বেঁচে থাকার আশায়, সুস্থতার আশায়, জায়গায় জায়গায় ভ্যাকসিনেশন শুরু করা হলেও সম্পূর্ণভাবে সকলকে ভ্যাকসিন করতে লেগে যেতে পারে আরো অনেকটাই সময়, দুশ্চিন্তার বিষয় যে এর মধ্যেই আসতে চলেছে করোনার তৃতীয় ঢেউ, আর এটি আগের দুই ঢেউএর থেকে অনেক বেশি শক্তিশালী ও সংক্রমণশীল।

এই তৃতীয় ঢেউ এ চিন্তার বিষয় এটাই যে এক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি বিপদ ও সংক্রমণের আশঙ্কা থাকছে শিশুদের নিয়ে, তাই আগের দুই ঢেউ এর থেকেও সকলকে আরও অনেক বেশি সচেতনতা অবলম্বন করে চলতে হবে, কারণ এবারে বিপদ আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের, অর্থাৎ শিশুদের।

করোনার এই তৃতীয় ঢেউ আসার আগে সকলকে সচেতন করতে আজ তাসাটি বীরপারা সংলগ্ন চা বাগানের প্রত্যন্ত এলাকায় বাচ্চাদের নিয়ে রামধনু নামে বন্ধুদের একটি গ্রুপের তরফ থেকে করোনার তৃতীয় ঢেউ সম্পর্কিত একটি সচেতনতামূলক প্রচার করা হয়। এই তৃতীয় ঢেউ বাচ্চাদের উপর কিভাবে প্রভাব ফেলতে পারে এবং তা থেকে কিভাবে নিস্তার পাওয়া সম্ভব নিয়ে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হয়। তার সঙ্গে বাচ্চাদের হাত স্যানিটাইজ করে, মাস্ক এবং বিস্কিটের প্যাকেট বিতরণ করা হয়।

রামধনুর সদস্যা দীপিকা রায় জানান ‘ছোটো ছোটো বাচ্চার হাসিমুখ গুলোর হাসি বজায় রাখার দায়িত্ব আমাদের, তাই করোনার তৃতীয় ঢেউ আসার আগেই আমরা শিশুদের নিয়ে একটা সচেতনতামূলক ক্যাম্প করি ও মাস্ক বিতরণ করি। এবং আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সুস্থ্য রাখতে সকলে সতর্কতা অবলম্বন করুন।’