খড়িবাড়ি’তে ৯ বছরে’র নাবালিকা’কে একাধিক বার ধ’র্ষ’ণ ও খু’নে’র হু’ম’কি’র অ’ভি’যো’গ! গ্রে’প্তা’র অ’ভি’যু’ক্ত

খড়িবাড়িতে ৯ বছরের নাবালিকাকে একাধিক বার ধর্ষণ ও খুনের হুমকির অভিযোগ! গ্রেপ্তার অভিযুক্ত

খড়িবাড়ি ব্লকের বিন্নাবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় ৯ বছরের এক নাবালিকাকে একাধিক বার ধর্ষণ ও খুনের হুমকির অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করল খড়িবাড়ি থানার পুলিশ। এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল গোটা এলাকায়। ধৃত যুবকের নাম পলাশ বর্মন(২৪)। সে বিন্নাবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার বাসিন্দা। ওই যুবক পেশায় রাজমিস্ত্রি।

নাবালিকার পরিবারের সূত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার নাবালিকার বাবা বাতাসি এলাকায় কাজ করতে যান এবং মা স্থানীয় একটি চা বাগানে সকালে কাজে বেরিয়ে পড়েন। বাড়িতে তখন ছিল মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলে ও ৯ বছর বয়সের ওই নাবালিকা। এরপর অভিযুক্ত পলাশ বর্মন বাড়িতে ঢুকে মানসিক ভারসাম্যহীন দাদাকে একটি বিড়ি দিয়ে বাড়ির বাইরে চলে যেতে বলে। সেই সুযোগে অভিযুক্ত পলাশ ঘরের ভিতরে ঢুকে জোরপূর্বক নাবালিকাকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ।

এরপর বিকেলে নাবালিকার মা কাজ থেকে বাড়ি ফিরলে নাবালিকা কাঁদতে কাঁদতে সমস্ত ঘটনা মাকে খুলে বলে। পরিবার সূত্রে আরও জানা যায়, ইতিপূর্বে অভিযুক্ত পলাশ ওই নাবালিকা একাধিকবার ধর্ষণ করে এবং ঘটনার কথা কাউকে বললে তার প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এরপর নাবালিকার মা স্থানীয় ক্লাবসহ প্রতিবেশিদের ঘটনাটি জানায়। নাবালিকার বাবা শনিবার রাতে ঘটনাটি জানিয়ে খড়িবাড়ি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

পুলিশ অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার রাতেই অভিযুক্ত পলাশ বর্মনকে গ্রেপ্তার করে খড়িবাড়ি থানার পুলিশ। নাবালিকা বর্তমানে খড়িবাড়ি গ্রামীন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। অভিযুক্ত পলাশ বর্মনকে পকসো আইনে রবিবার শিলিগুড়ি মহকুমা আদালতে পাঠায় খড়িবাড়ি পুলিশ। অপরদিককে স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযুক্ত পলাশ বর্মনের কঠোর থেকে কঠোরতর শাস্তির দাবি করেন।