মেয়ের বিয়ের চি’ন্তা করতে হবে না! ১৩০ টাকা বিনিয়োগে পা’ন ২৭ লক্ষ টা’কা, জেনে নিন

স্বল্প আয়ের পিতামাতাদের তাদের মেয়ের বিয়ের জন্য অতিরিক্ত টাকা সংগ্রহ করতে সহায়তা করে এলআইসির এই প্রকল্প।অনেক বাবা-মা কন্যা সন্তানের জন্মের পর থেকেই তার উজ্জ্বল ভবিৎষতের জন্যে ভাবতে শুরু করে। কন্যা সন্তানের পড়াশোনা, বিয়ের খরচরের জন্যে নানা বিনিয়োগের মাধ্যম খুঁজতে থাকে তাঁরা। যাতে পরবর্তী সময়ে সন্তানের কোনো অসুবিধা না হয়।

সরকার যদিও কন্যা সন্তানের উন্নত ভবিষ্যতের জন্য অনেক পরিকল্পনা নিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে কন্যাসন্তানের কথা মাথায় রেখে ভারতের জীবন বীমা কর্পোরেশন (LIC) একটি বিশেষ পরিকল্পনা নিয়েছে। এর নাম এলআইসি কন্যাদান পলিসি। এলআইসির এই প্রকল্পটি স্বল্প আয়ের পিতামাতাদের তাদের মেয়ের বিয়ের জন্য অতিরিক্ত টাকা সংগ্রহ করতে সহায়তা করে।

প্রতিদিন ১৩০ টাকা অর্থাৎ বার্ষিক ৪৭,৪৫০ টাকা জমা দিতে হয় এলআইসি কন্যাদান পলিসির আওতায় একজন বিনিয়োগকারীকে । পলিসির আওতায় ৩ বছরেরও কম সময়ে প্রিমিয়াম প্রদান করতে হয়।

পরবর্তীকালে অর্থাৎ ২৫ বছর পরে, এলআইসি থেকে প্রায় ২৭ লাখ টাকা পাওয়া যায়। এলআইসি কন্যাদান পলিসিতে বিনিয়োগকারীর ন্যূনতম বয়স ৩০ বছর হতে হবে এবং বিনিয়োগকারীর মেয়ের ন্যূনতম বয়স ১ বছর হতে হবে।

এছাড়া ,এলআইসি কন্যাদান পলিসির মেয়াদ সর্বনিম্ন ১৩ বছর। যদি বিনিয়োগকারী ব্যক্তির কোনও কারণে মৃত্যু হয় তবে সেই ব্যক্তিকে এলআইসির পক্ষে অতিরিক্ত পাঁচ লক্ষ টাকা পাবে। এই প্রকল্পের আওতায় যদি কোনও ব্যক্তি পাঁচ লক্ষ টাকার বীমা নেন, তবে তাকে ২২ বছরের জন্য মাসিক কিস্তি হিসাবে ১,৯৫১ টাকা দিতে হবে। সময় শেষ হলে, ১৩.৩৭ লক্ষ টাকা পাওয়া যাবে।