সূর্য দেবের আ’রা’ধ’না করুন বিশেষ রী’তি মেনে, দূর হ’বে সব বা’ধা বি’প’ত্তি

হিন্দু ধর্মের সমস্ত দেবদেবীর মধ্যে অন্যতম হলেন সূর্য দেবতা। আমাদের জীবনের সমস্ত শক্তির উৎস হলেন তিনি। তিনি হলেন কাশ্যপ এবং অদিতির পুত্র। কখনো কখনো শোনা যায় তিনি ইন্দ্রের পুত্র। জন্মসূত্রে বিভিন্ন ভেদাভেদ থাকলেও তিনি যে আমাদের সমস্ত শক্তির উৎস তা নিয়ে কোনো দ্বিরুক্তি নেই। অন্য কোন দেবতাকে সামনাসামনি না দেখতে পেলেও সূর্যদেবতা এমন একজন দেবতা যাকে সামনাসামনি দেখতে পাওয়া যায়।

প্রত্যেকদিন সকালে সূর্য প্রণাম করলে আপনার দিন শুভ হবে। সূর্যদেব যমরাজ এবং যমুনাদেবীর পিতা বলে মনে করা হয়। তবে হিন্দু ভাগ্যে সৌভাগ্য এবং সমৃদ্ধি দেবতা হিসেবে মান্য করা হয় তাকে। শুক্লপক্ষের রবিবারে সূর্যদেবের মন্ত্র যদি জপ করতে পারেন আপনি তাহলে আপনার জীবন থেকে সমস্ত কষ্ট বা দুঃখ দূর হয়ে যাবে। তবে এই মন্ত্র পাঠ করার সময় কিছু কথা আপনাকে মাথায় রাখতে হবে।

মন্ত্র জপ করার সময় লাল আসনে বসতে হবে আপনাকে। পূজার সময় জ্বালাতে হবে ঘিয়ের প্রদীপ। প্রথমে গুরু, গণেশ, বিষ্ণু, শিবের উপাসনা করার পর শুরু করুন সূর্য মন্ত্র জপ। স্নান করে শুদ্ধ বস্ত্রে করতে হবে এই আরাধনা। এইভাবে আরাধনা করলে শারীরিক এবং মানসিক কষ্ট থেকে রেহাই পাওয়া যায়।সূর্যদেবের উপাসনা যদি আপনি মন থেকে করতে পারেন তাহলে দেবতা আপনার প্রতি সন্তুষ্ট হবেন।

তবে কখনো স্নান না করে সূর্য পূজা করা উচিত নয়। সর্বদা তামার পাত্রে সূর্য পূজা করা উচিত। পুজো করার সময় কোন রকম চিনি অথবা মিষ্টি জাতীয় জিনিস ব্যবহার করবেন না। লক্ষ্য করবেন, যাতে পুজো করার সময় পবিত্র জল এক ফোটাও যেন পায়ে না পরে। অর্ঘ্য দান করার সময় যদি সূর্যদেব মেঘের আড়ালেও চলে যান তবুও অর্ঘদানে বিরতি দেবেন না কখনো।

এবার চলুন জেনে নেওয়া যাক কোন কোন মন্ত্র আপনি উচ্চারণ করবেন। সূর্য প্রণাম মন্ত্র হল – ”ওঁ জবাকুসুমসঙ্কাশং কাশ্যপেয়ং মহাদ্যুতিম । ধান্তারীং সর্বপাপঘ্নং প্রণতোহস্মি দিবাকরম্ ।। ” সূর্যদেবের ধ্যান মন্ত্র হল- ”ওঁ রক্তাম্বুজাসনমশেষগুণৈসিন্ধুং, ভানুং সমস্তজগতামধিপং ভজামি। পদ্মদ্বয়াভয়বরান্ দধতং করাব্জৈ- র্মাণিক্যমৌলিমরুণাঙ্গরুচিং ত্রিনেত্রম্।।”

সূর্য নাম মন্ত্র হল- ”ওং ঘৃণি সূর্যায় নমঃ”।