ক’রোনা কালে কি আগামী বছরেও আমিরশাহীতেই হবে আইপিএল? কি বলছে বোর্ড, শুনুন

আরব আমিরশাহীতে শুরু হয়েছে এবারের আইপিএল। ফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ১০ নভেম্বর। ৫৩ দিন ধরে চলবে এই টুর্নামেন্ট। হবে মোট ৬০ টি ম্যাচ। তবে করোনার জেরে এবার আইপিএলের জাকজমক অনেকটাই কমেছে। হবে না উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। এই প্রথমবার আইপিএলে থাকবেনা চিয়ারলিডার। প্রথম ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়েছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ও চেন্নাই সুপার কিংস এর মধ্যে। এই ম্যাচটিতে জয়লাভ করে চেন্নাই সুপার কিংস।

আমিরশাহী ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে মউ চুক্তি করে করেছে বিসিসিআই। যার ফলে দু’দেশের ক্রিকেটীয় সম্পর্ক ভালো হওয়ার পাশাপাশি, ভারতে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত আমিরশাহীকে দ্বিতীয় ‘হোম’ হিসেবে দেখা যেতে পারে বিরাট কোহলিদের।মউ চুক্তির পরে মনে করা হচ্ছে, আগামী আইপিএলও যদি আমিরশাহীতে হয়, তাহলে অবাক হওয়ার কিছু নেই। কারণ পরের বছর মার্চ-এপ্রিল মাসে আইপিএলের আসর বসবে। এই ৬ মাসের মধ্যে দেশে কোভিড পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে আগামী আইপিএলও আমিরশাহীতে হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

এদিকে এক সিনিয়র আধিকারিক জানিয়েছেন, ইংল্যান্ডের ভারত সফর দিয়েই এ দেশে হয়তো করোনা পরবর্তী ক্রিকেটের সূচনা হবে। ইংল্যান্ড দলের জন্য সেক্ষেত্রে জৈব বলয় সুরক্ষার ব্যবস্থা করার পরিকল্পনাও রয়েছে। এর আগে বিসিসিআইয়ের সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বলেছিলেন, নভেম্বরে চলতি আইপিএল শেষ হওয়ার পর ডিসেম্বরে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়া যাবে ভারতীয় দল। সেখান থেকে দেশে ফিরে ফেব্রুয়ারি মাসে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলতে নামবে ভারতীয় দল। সীমিত ওভারের পাশাপাশি হবে টেস্ট সিরিজও। সেই সময়েও দর্শক প্রবেশের ক্ষেত্রে অনুমতি দেওয়া হবে কিনা, তা এখনও স্পষ্ট নয়। সিনিয়র আধিকারিক জানিয়েছেন, প্রথমেই হয়তো দর্শকরা গ্যালারিতে বসে ম্যাচ উপভোগ করতে পারবেন না। তবে পরবর্তীতে পরিস্থিতি বুঝে অনুমতি দেওয়া হবে।