ডিলিট হয়ে যেতে পারে Whatsapp, মানতে হবে এই শর্ত, চিন্তিত ব্যবহারকারীরা

নতুন বছরে নতুন নিয়ম নিয়ে হাজির হোয়াটসঅ্যাপ মেসেঞ্জিং অ্যাপ। নতুন নিয়মে বেশ কিছু শর্ত বেঁধে দিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। এই শর্ত না মানলেই বিপদ! শর্ত লঙ্ঘনকারীদের স্মার্টফোন থেকে অটোমেটিক্যালি ডিলিট হয়ে যাবে হোয়াটসঅ্যাপ। এমনটাই জানাচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে প্রকাশিত নির্দেশিকা অনুসারে, এই মেসেঞ্জিং অ্যাপের প্রাইভেসি পলিসিতে বেশ কিছু বদল এনেছে কর্তৃপক্ষ।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের অ্যাপ্লিকেশনে মঙ্গলবার একটি নোটিফিকেশন এসেছে। এই নোটিফিকেশনে জানানো হয়েছে হোয়াটসঅ্যাপের প্রাইভেসি পলিসি বদলাতে চলেছে। এতদিন হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীরা অ্যাপ্লিকেশন আপডেট করতে অথবা অ্যাপের প্রাইভেসি পলিসি স্বীকার করতে “নট নাও” অপশন ব্যবহার করতে পারতেন।

নতুন বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে এই “নট নাও” অপশন আর ব্যবহার করতে পারবেন না ইউজাররা। আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের ৮ তারিখের মধ্যেই ইউজারদের এই প্রাইভেসি পলিসি মেনে নিতে হবে। নতুবা তারা আর হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন না। এমন পলিসি আনার প্রধান উদ্দেশ্য হলো, হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীরা এবার থেকে যে কনটেন্ট আপলোড, সাবমিট, স্টোর, সেন্ড বা রিসিভ করবেন সেগুলিকে ট্রান্সফারেবেল লাইসেন্স প্রদান করবে সংশ্লিষ্ট সংস্থা।

এই নন-এক্সক্লুসিভ, রয়্যেলটি ফ্রি, ট্রান্সফারেবেল লাইসেন্সের মাধ্যমেই সেই কন্টেন্টগুলি রিপ্রডিউস আর ডিসপ্লে করার অপশন থাকবে। এছাড়াও ইউজারদের ফরোয়ার্ড করা কোনো ছবি বা মেসেজ হোয়াটসঅ্যাপের সার্ভারে সুরক্ষিত থাকবে। পাশাপাশি হোয়াটসঅ্যাপ পেমেন্টের ক্ষেত্রেও গ্রাহকদের নতুন সুযোগ সুবিধা প্রদান করা হবে। মোট কথা, নতুন বছরে নতুন ভাবে সেজে উঠেছে বিশ্বের সর্বাধিক ব্যবহৃত মেসেঞ্জিং অ্যাপ।