কি নেই নয়া ফোনে! দুর্দান্ত সব ফিচারে সকলকে চমকে দিল iphone 12

এবার অ্যাপেল প্রেমীদের জন্য এক দারুণ সুখবর। কারণ এবার এই সংস্থা তাদের সিরিজের ১২ তম লাইন আপ করা অ্যাপেল ১২ নিয়ে এসেছে বাজারে। তারা ইতিমধ্যে সেটা লঞ্চ করে দিয়েছে যার ফলেই এতোটাই শোরগোল পরে গেছে।অবশ্যই এখনকার সব হাই সেগমেন্টের নতুন লঞ্চ করা ফোন ৫ জি সেলুলার গতি সম্পন্ন। ডিজাইন থেকে শুরু করে আরও বিভিন্ন দিক থেকে একেবারেই আলাদা মানের ফোন। এই আই ফোন ১২ এর লাইন আপ্টি রয়েছে তিনটি ভাগে, আইফোন ১২ মীনই, আইফোন প্রো ম্যাক্স, আইফোন ১২ প্রো।

এই ফোনের স্পেসিফিকেশনের কথায় যদি আসা যায় তাহলে দেখা যাবে তিনটি ফোনের এল ইডি ডিসপ্লের মাপ তিন রকম সর্বোচ্চ ৬.৬৮ ইঞ্চি, তারপর ৬.০৬ ইঞ্চি ও সর্বশেষে ৫.৪২ ইঞ্চি। কিন্তু সব ফোনের রেজুলিউশন ২৫৩২*১১৭০, এদিকে আ২ মেগাপিক্সেলের ঘনত্ব ৪৬০ পিপি আই। এই আই ফোন ১২ এর ক্যামেরায় থাকবে আলট্রা ওয়াইড ও ওয়াইড মোডের ফিচার। সাথে ১২ মেগাপিক্সেলের ২ টি ক্যামেরা। রিয়ার ক্যামেরার মধ্যে রাখা হয়েছে রিয়ার অটোফোকাস, এল ই ডি ডুয়াল টোন ফ্ল্যাশ, এদিকে এইচডি আর।

নাইট মোডের কথায় যদি আসা যায় তাহলে দেখা যাবে আগের থেকেও আরও তুখর ছবি তুলবে আইফোন ১২। যাতে নাইট সেলফি খুব ভালোমতো নিখুঁত ভাবে তোলা যায় তার জন্য আছে ডিপ ফিউশন, স্মার্ট এইচ ডি আর থ্রী, আছে ডলবি ভিশন রেকর্ডিং যার ফলে সাউন্ডের অরিজিনালিটি বোঝায আবে। এই আইফোন ১২ স্বাভাবিকভাবে স্প্ল্যাশ প্রুফ ও ডাস্ট প্রুফ। এই যে নতুন আইফোন ১২, এর সাথে একটি যে নতুন ফিচার লঞ্চ করেছে অ্যাপেল সেটার নাম ম্যাগসেফ। আসলে এটি হল একটি চুম্বকীয় কেস যা কিনা থাকবে আইফোনের পেছনে লাগানো অবস্থায়। এর ফলে আপনি দ্রুত ওয়ারলেস চার্জিং করতে পারবেন ও অন্যান্য কার্ড রাখতে পারবেন।

এদিকে এবার যদি আপনার তথ্য সুরক্ষার বিষয়ে আসা য্য তাহলে বলতে হবে এর মধ্যে রয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। যার ফলে আপনি মোবাইলে ফেস আই ডি আনলক সিস্টেম, আইক্লাউড এমনকি তথ্য যেখানে ব্যাকআপ করবেন সেটা দারুণভাবে সুরক্ষিত থাকবে। এই আইফোন ১২ এ ১৪ বায়োনিক চিপসেট ও আই ও এস ১৪ যুক্ত করা হবে। এই আইফোনের মধ্যে রঙের ভেরিয়েন্ট রাখা হয়েছে ৪ জিবি র্যা ম সহ ৬৪ জিবি ইন্টারনাল সহ, নীল সাদা, লাল, কালো, সবুজ এই সব রঙে পাওয়া যাবে।।