জ’ন’প্রি’য় “খেলাঘর” সিরিয়ালের পূর্ণা আ’দ’তে কেমন মা’নু’ষ! জা’নু’ন অভিনেত্রীর আ’স’ল প’রি’চ’য়

বর্তমানে শুরু হয়েছে অন্য আরেকটি জনপ্রিয় ধারাবাহিক খেলাঘর। সোম থেকে শুক্র ঠিক সন্ধে ছটায় স্টার জলসায় আমরা দেখতে পাচ্ছি এই সিরিয়ালটিকে। এই ধারাবাহিকে কত প্রাণ মাসের মধ্যেই আমরা দেখতে পেয়েছি অসাধারণ কিছু অভিনয়। চরিত্র ইতিমধ্যেই মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছে।

বিগত পাঁচ মাসের মধ্যেই এই ধারাবাহিকে দেখানো হয়েছে যে, কিভাবে সমস্ত সামাজিক বাধাকে উপেক্ষা করে তৈরি হয়েছে সান্টু এবং পূরনার প্রেম কাহিনী। এই গল্পের মধ্যে সমাজবদলের একটু ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে যা অন্য সমস্ত গল্প’-এর থেকে একেবারেই আলাদা।

খেলাঘর ধারাবাহিকের অভিনেতা-অভিনেত্রী থেকে শুরু করে সকলেই দুর্দান্ত কাজ করেছেন। ধারাবাহিকের পরিচালক স্নেহাশিস চক্রবর্তী ধারাবাহিকের জন্য এনেছেন বেশ কয়েকটি নতুন মুখ। তারমধ্যে নায়িকা পূর্ণার ভূমিকায় অভিনয় করছেন যিনি তার কথা শুনলে আপনিও চমকে যাবেন।

খেলাঘর ধারাবাহিকে নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করছেন ইরাবতীর আকাশ ওরফে জনপ্রিয় অভিনেতা সৈয়দ আরেফিন। অন্যদিকে খেলাঘর ধারাবাহিকে পূর্ণা চরিত্রে অভিনয় করছেন স্বীকৃতি মজুমদার।

নতুন মুখ হলেও তিনি ইতিমধ্যেই সকলের সঙ্গে তালে তাল মিলিয়ে অভিনয় করেছেন। তাকে দেখলে মনে হবেই না যে তিনি একজন নবাগত।

অভিনয় জগতে আসার আগে তিনি মডেলিং দুনিয়ায় কাজ করতেন। গতবছর পিসি চন্দ্র গোল্ড লাইট দিবা কম্পিটিশনে ফার্স্ট রানারআপ হয়েছেন তিনি। অভিনয় করার পাশাপাশি তিনি ছোট থেকেই ছিলেন একজন নৃত্যশিল্পী।

ধারাবাহিকেও বেশ কয়েকটি এপিষদে তার নাচ সকলকে মুগ্ধ করে দিয়েছে। শুধুমাত্র নাচ নয় ২৪ বছর বয়সী এই অভিনেত্রী গান করতেও খুব পছন্দ করেন। বাস্তবে তিনি সিঙ্গেল এবং সুন্দরী।

নায়িকা একজন ট্রেনি রিসার্চ ফেলো ছিলেন সরোজ গুপ্ত ক্যান্সার সেন্টার এন্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের। শিক্ষার সাথে সাথে তার কর্মক্ষেত্র ছিল বেশ উজ্জ্বল।

কিলো হার্ডসের ক্রিয়েটিভ প্রোডাকশন ইউনিটে মিডিয়া মার্কেটিং ডিরেক্টর হিসেবে কাজ করতেন তিনি। এরপর টুকটাক মডেলিং করছেন এবং সেখান থেকেই তার অভিনয় জগতের যাত্রা শুরু হয়।