অর্ণব গোস্বামীর বিরুদ্ধে কি অভিযোগ? কোন মামলায় গ্রেফতার? জানুন বিস্তারিত

রিপাবলিকান টিভির সম্পাদক অর্ণব গোস্বামীর গ্রেপ্তারির মামলায় রীতিমতো উত্তাল মুম্বাই সহ গোটা দেশ। বুধবার সকালে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করে রায়গড় পুলিশ। ইন্টিরিয়র ডিজাইনার অন্বয় নায়েক এবং তাঁর মা কুমুদ নায়েকের মৃত্যুতে পরোক্ষে প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। উল্লেখ্য, গত বছরই এই মামলা থেকে মুক্তি পেয়ে গিয়েছিলেন অভিযুক্তরা।

সূত্রের খবর, ২০১৮ সালে আলিবাগের কবীর গ্রামের বাসিন্দা ৫৩ বছর বয়সি ইন্টিরিয়র ডিজাইনার অন্বয় নায়েক এবং তাঁর মা কুমুদ নায়েক আত্মহত্যা করেন। সুইসাইড নোটে তারা তাদের মৃত্যুর কারণ হিসেবে রিপাবলিকান টিভি সম্পাদক অর্ণব গোস্বামী, আইক্যাস্টএক্স/স্কাইমিডিয়ার ফিরোজ শেখ এবং স্মার্ট ওয়ার্কের প্রতিষ্ঠাতা নীতেশ সারদাকে দায়ী করে গেছেন।

অভিযুক্তদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে আর্থিক তছরুপের অভিযোগ এনেছেন আত্মঘাতীরা। অন্বয়ের স্ত্রী অক্ষতা পুলিশের কাছে অভিযোগ জানান, এআরজি আউটলায়ার মিডিয়ার (রিপাবলিকান টিভি এই সংস্থার অধীনস্থ) কাছ থেকে ৮৩ লক্ষ টাকা, ফিরোজ শেখের থেকে চার কোটি টাকা এবং নীতিশের থেকে ৫৫ লক্ষ টাকা পাওয়ার কথা ছিল তার স্বামীর। কিন্তু অভিযুক্তরা প্রত্যেকেই তা দিতে অস্বীকার করে।

তবে উপযুক্ত প্রমাণের অভাবে গতবছর অভিযুক্তরা প্রত্যেকেই ছাড়া পেয়ে যায়। এরপর সঠিক বিচারের আশায় মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখের কাছে পুনরায় অভিযোগ জানান অন্বয়ের মেয়ে আদনিয়া। চলতি বছরের মে মাসে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তরফ থেকে এই মামলার তদন্ত পুনরায় শুরু করার নির্দেশ দেওয়া হয়। অন্বয়ের স্ত্রী অক্ষতাকেও একটি ভিডিয়োতে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে দেখা যায়। যার পরিপ্রেক্ষিতে অবশেষে গ্রেপ্তার করা হয়েছে অর্ণব গোস্বামীকে।