অভাবনীয়, মিনিটে বুক হবে ১০,০০০ টিকিট, আজ থেকে ট্রেনের টিকিট বুকিংয় হবে সুপার ডুপার ফাস্ট

করোনার কারণে এখন থেকে অনলাইনে টিকিট বুকিং বাধ্যতামূলক। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে টিকিট বুকিংয়ের ক্ষেত্রে অনলাইন প্লাটফর্ম বেছে নিয়েছে রেল দপ্তর। এমতাবস্থায় অনলাইনে টিকিট বুকিংয়ের ক্ষেত্রেনিত্যযাত্রীদের যেতে কোন অসুবিধার সম্মুখীন হতে না হয় তার জন্য অত্যাধুনিক টিকিট বুকিং ব্যবস্থা চালু করলো রেল দপ্তর।নতুন ব্যবস্থা অনুসারে এবার থেকে প্রতি মিনিটে প্রায় দশ হাজার ট্রেন টিকিট বুক করা যাবে।

নতুন বছরে নতুন নিয়ম। ভারতের রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল চলতি বছরের শেষ দিন দুপুর বারোটা নাগাদ IRCTC-র একটি নতুন ওয়েবসাইট চালু করলেন। রেল মন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, নতুন এই ওয়েবসাইটটি আপগ্রেড হয়ে গেলেই দ্রুততার সঙ্গে বেশিসংখ্যক টিকিট বুক করা যাবে। উল্লেখ্য এতদিন পুরনো নিয়ম অনুসারে মিনিটে ৭,৫০০টি টিকিট বুক করা যেত। এবার কাজে গতি আনতে নতুন ব্যবস্থা গ্রহণ করল ভারতীয় রেল মন্ত্রক।

রেল কর্তৃপক্ষ সূত্রে খবর, এই নতুন ওয়েব সাইটে যে শুধু টিকিট বুকিংয়ের কাজে গতি আসবে তাই নয়, ট্রেন যাত্রীরা খাদ্য সামগ্রী সহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধাও পাবেন এই ওয়েবসাইট ব্যবহার করে। রেলমন্ত্রী জানিয়েছেন, বর্তমান মহামারীর পরিস্থিতিতে ট্রেনযাত্রীরা টিকিট কাউন্টারে দাঁড়িয়ে টিকিট বুক করার চেয়ে অনলাইনে টিকিট কাটতে পছন্দ করছেন। যাত্রী চাহিদা অনুসারে তাই এবার টিকিট বুকিং সাইটে আপগ্রেডেশন আনা হলো।

এই ওয়েবসাইট ছাড়াও যাত্রী সুবিধার্থে রেল দপ্তরের তরফ থেকে “এ আই বেসড দিশা চ্যাটবট” এর ব্যবস্থা করা হয়েছে যা টিকিট বুকিংয়ের ক্ষেত্রে যাত্রীদের সাহায্য করবে। পাশাপাশি “পে লেটার সিস্টেম”ও আনছে রেল মন্ত্রক। টিকিট কাটার সময় প্রয়োজনীয় অর্থ না থাকলেও টিকিট বুক করার ১৫ দিনের মধ্যেই অথবা টিকিট হাতে পাওয়ার ২৪ ঘন্টার মধ্যে অনলাইন প্লাটফর্ম মারফত টিকিটের দাম মেটাতে পারবেন যাত্রীরা।