ভোটের আগে বুলি ফুঁটেছে, এক মাসের মধ্যেই ক’রোনার ভ্যা’কসিন চলে আসবে, ঘোষণা ট্রাম্পের

সামনেই আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আসতে চলেছে। আর কিছুদিনের মধ্যেই বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভাগ্য পরীক্ষা হতে চলেছে। মার্কিনীদের ভোট পেতে মরিয়া ট্রাম্প এবার করোনা ভ্যাকসিনকে হাতিয়ার করে ভোট যুদ্ধে জিততে চাইছেন। সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট একটি বিবৃতি প্রকাশ করে জানিয়ে দিলেন, আর মাত্র দুই থেকে তিন সপ্তাহের মধ্যেই করোনা ভ্যাকসিন পেতে চলেছেন আমেরিকাবাসী।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিবৃতি অনুযায়ী, অক্টোবর মাসের শুরুর দিকে অথবা মাঝামাঝি সময়েই ভ্যাকসিন পেয়ে যাবেন সে দেশের মানুষ। মঙ্গলবার টাউন হলে আয়োজিত একটি বৈঠকে যোগদান করে ভোটারদের প্রশ্নের উত্তরে আমেরিকান প্রেসিডেন্ট জানালেন, বর্তমানে আমেরিকার ভ্যাকসিন তৈরি একেবারে দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে রয়েছে। আর মাত্র ২ থেকে ৩ সপ্তাহের অপেক্ষা। তারপরেই আমেরিকার বাজারে চলে আসবে করোনা প্রতিরোধী ভ্যাকসিন।

উল্লেখ্য, রাশিয়া ইতিমধ্যেই তাদের তৈরি ভ্যাকসিন বাজারে তো করেছে। এদিকে চীনও নভেম্বর মাসের মধ্যেই ভ্যাকসিন বাজারজাতকরণের সম্ভাবনা জানিয়েছে। ফলে স্বভাবতই চাপ বাড়ছে আমেরিকার উপর। এদিকে করোনা মহামারীতে বিশ্বের সবথেকে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হলো আমেরিকা। আমেরিকার এই ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টির জন্য অনেকেই প্রেসিডেন্টের নির্বুদ্ধিতাকেই দায়ী করছেন।

ফলে ভোটের আগে ভ্যাকসিন বাজারে এনে মার্কিনিদের আস্থা ফেরাতে চাইছেন প্রেসিডেন্ট। তবে, বিরোধীদের দাবি ভোট প্রচার করতে গিয়ে দেশবাসীকে জীবন সংকটের মধ্যে ফেলে দেওয়ার পরিকল্পনা করছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এদিকে, বর্তমানে আমেরিকায় মোডার্না আইএনসি এবং ফাইজার আইএনসি নামক দুটি মার্কিন সংস্থা ভ্যাকসিন ট্রায়ালের কাজ চালাচ্ছে। এই দুটি সংস্থাই নভেম্বর মাসের আগে ট্রায়ালের কাজ সম্পন্ন করতে পারবে কিনা সে বিষয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। অতএব প্রেসিডেন্ট বিবৃতি দিলেও, ভ্যাকসিন সম্পর্কে ধোঁয়াশা থেকেই যাচ্ছে।