ঋণ সমস্যায় জর্জরিত? বাস্তুমতে কয়েকটি নিয়ম মেনে চললেই মিলবে মুক্তি

ঋণ যেটা এখন সব মানুষের সাথেই ওতোপ্রতো ভাবে জড়িত। জ্যোতিষ শাস্ত্রে যেখানে ঋণের বোঝা বেশী বুঝতে হবে সেখানে বাস্তু দোষও বেশী। ঋণের জর্জরিত মানুষ কখনই সুখী হতে পারে না, আর সেই কারণেই অশান্তি, ঝামেলা এই সবের সম্মুখীন হতে হয় মানুষের। ঋণ একবার নেওয়া শুরু হলে, সেই ঋণ শোধ করার জন্য আরেক ঋণের আবির্ভাব, এভাবে সারাজীবন চলতেই থাকে। ব্যাঙ্ক ও বিভিন্ন সংস্থা যেনো ওত পেতে বসে থাকে ঋণ দেওয়ার জন্য, আর সেখানে মানুষ গেলেই সারা জীবনের ধাক্কা।তবে এই ঋণ থেকে মুক্ত হওয়ার একটা পন্থা আছে, সেটা জ্যোতিষ শাস্ত্রে।

জ্যোতিষ শাস্ত্রে উত্তর পূর্ব দিন বাড়ি অফিসের জন্য ভালো, সেদিকে মুখ করা বাড়ি অফিসে সর্বদা শান্তি ও সমৃদ্ধি বজায় থাকে। এদিকে আমাদের অনেক বাড়িতেই নোংরা, ঝুল জমে থাকে এতে কিন্তু বাড়ির শান্তি সমৃদ্ধি নষ্ট হয়। তাই বাড়ি সর্বদা পরিষ্কার পরিছন্ন রাখাটা দরকার যার ফলে সমৃদ্ধি বাড়ে।

এদিকে আরও জানা যায় , আপনি যদি আর্থিক কারণে ঋণ গ্রস্থ হয় তাহলে প্রদীপে লাল সলতে ব্যবহার করুন সাদা সলতের জায়গায়। তাছাড়া আপনি যদি একটি গোটা নারকেলের মধ্যে সিদুরের তিলক একে সেটা লাল কাপড়ে জড়িয়ে ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করেন ও টাকা পয়সার জায়গায় রেখে দেন তাহলে দ্রুত সমস্যার সমাধান ঘটবে। বিশেষ করে এই বাংলা মাস , অগ্রহায়ণ মাসে যদি পালন করা যায় তাহলে দ্রুত কাজ দেবে।