সব কিছুই ত’ড়ি’ঘ’ড়ি বা’তি’ল করে দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জি

দেশের করোনা পরিস্থিতি ক্রমাগত নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। লাগামছাড়া সংক্রমণে ভুগছে ভারত বর্ষ। করোনার হটস্পট হয়ে উঠছে ভারতের বেশ কয়েকটি রাজ্য। দেশের পাশাপাশি রাজ্যের পরিস্থিতিও শোচনীয়। তার উপর আবার পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজ্যবাসীর মধ্যে উন্মাদনা দেখা দিয়েছে। জনসমাবেশ সভা সমিতির মিটিং মিছিলে লোকে লোকারণ্য।

এর থেকে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা আরও বেড়ে চলেছে। অথচ প্রশাসন নির্বিকার। কিন্তু এবার রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে বেশ বড়সড় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করে দিলেন এরপর রাজ্যে আপাতত আর কোনো রাজনৈতিক সমাবেশ হবে না।

গতকাল মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দিয়েছেন, কলকাতার বুকে আর কোনো বড় রাজনৈতিক সমাবেশের আয়োজন করা যাবে না। তবে আগামী 26 এপ্রিল কলকাতার বিডন স্ট্রিটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের যে প্রচার সভায় অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে তা বাতিল করা হচ্ছে না। কারণ বহুদিন আগে থেকেই এই পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল এবং সেই মতো ব্যবস্থাও হয়ে গিয়েছে।

আগামী 26 শে এপ্রিলের রাজনৈতিক সমাবেশই তৃণমূলের তরফ থেকে শেষ রাজনৈতিক সমাবেশ হবে। তবে দলের তরফ থেকে অবশ্য ছোট করে সমাবেশের আয়োজন করা যেতে পারে। কিন্তু সেই সমাবেশে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত থাকবেন না। করোনার বর্ধিত গ্রাফ দেখেই এই সিদ্ধান্ত নিলেন মুখ্যমন্ত্রী।