Tornado: মাত্র ১ মিনিটের ঘূ’র্ণি’ঝ’ড়ে ত’ছ’ন’ছ বসিরহাটের গ্রাম, হতচকিত গ্রামবাসীরা

আবার হল টর্নেডো। সিনেমার পর্দায় যে টর্নেডোকে দেখলে আমরা অবাক হয়ে যেতাম, সেই টর্নেডো এখন আমাদের কাছে জল ভাত। বসিরহাট মহকুমা হাড়োয়া ব্লকের শালিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের তালবেড়িয়া গ্রামে মাত্র ১ মিনিটে টর্নেডোয় ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে গেছে বেশ কিছু বাড়ি। ঝড়ের দাপটে ভেঙে গেছে বৈদ্যুতিক খুঁটি।

মাত্র ১ মিনিট অর্থাৎ ৬০ সেকেন্ডের একটি টর্নেডোয় হকচকিয়ে গেছে গ্রামবাসীরা। একদিকে টালির ছাদ এবং টিনের ছাদ উড়ে চলে যাচ্ছে আবার অন্যদিকে গাছ উপড়ে পড়ছে রাস্তার উপরে। মাত্র কয়েক সেকেন্ডের এই ঝড়ে হতভম্ব হয়ে গিয়েছিলেন সকলে।

আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। তবে নিহত অথবা ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনো জানা যায়নি।ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান হাড়োয়ার বিডিও সমীর রঞ্জন মান্না। পুলিশ প্রশাসন তৎপরতার সঙ্গে মানুষকে উদ্ধার কার্যে নেমে পড়েছেন।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান হাড়োয়ার বিডিও সমীর রঞ্জন মান্না ও পুলিশ আধিকারিকরা। এখনও ক্ষতির পরিমাণ পুরোপুরি জানা যায়নি। প্রশাসনের তরফে বলা হয়েছে, এক মিনিটের টর্নেডোয় গ্রামের ক্ষতি হয়েছে।

এর আগে জুন মাসে ঝড়ো হাওয়ায় প্রবন্ধ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল উত্তর ২৪ পরগনার গাইঘাটা। একাধিক বাড়ি ভেঙে পড়ে নিরাশ্রয় হয়ে পড়ে বহু পরিবার। কোথাও মাটির দেয়াল ধসে পড়ে যায় কখনো আবার বৈদ্যুতিক খুঁটি উপরে যায়।

 গ্রামবাসীরা তখন প্রায় সকলেই ঘুমোচ্ছিলেন। হু হু করে শব্দ শুনেই জেগে ওঠেন কয়েকজন। কিন্তু ততক্ষণে প্রায় সব শেষ।

প্রসঙ্গত, দক্ষিণবঙ্গের কয়েকটি জেলায় আজ ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা। আগামীকাল থেকেই পরিস্থিতির উন্নতি হবে বলে মনে করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই পুরুলিয়ায় শুরু হয়ে গেছে অতি ভারী বৃষ্টি। প্রবল বৃষ্টি শুরু হয়ে গেছে পূর্ব মেদনীপুর এলাকায়। আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে সমুদ্রে মাছ ধরতে যেতে মানা করা হয়েছে মৎস্যজীবীদের।