একঘেয়ে সবজি খে’য়ে কি খুবই ক্লা’ন্ত? রু’চি আনতে বা’নি’য়ে ফে’লু’ন সরষে-বেগুনের তরকারি

নিরামিষভোজীদের কাছে খাবার যতই প্রিয় হোক না কেন তাদের খেতে দিতে খুব সমস্যা সৃষ্টি হয়। যারা নিরামিষভোজন করেন তারা মাছ মাংস ডিম কোনটাই খান না ফলে তাদের জন্য একেবারে অন্যরকম ভাবে রান্না করতে হয়। যেহেতু মাছ মাংস এবং ডিম এমনকি পিয়াজ রসুন দেওয়া যায় না তার ফলে খাবার কে আরও টেস্টি বানানোর জন্য দিতে হয় অন্য কোন উপকরণ।

তাই আজ আপনাদের জন্য নিয়ে আসা হয়েছে একটু অন্যরকম নিরামিষ পদ। এটি যেমন খেতে অসাধারণ রান্না করাও তেমনই সোজা। খুব অল্প উপকরণ দিয়ে ঝটপট বানিয়ে নেওয়া যায় এই উপকরণটি। তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক কিভাবে বানানো যায় বাড়িতে বসেই সর্ষে বেগুন।

চলুন দেখে নেওয়া যাক আগে সর্ষে বেগুন বানানোর জন্য কি কি লাগবে।

১ টা মাঝারি আকারের বেগুন
১/২ চা চামচ লঙ্কা গুঁড়ো
১/২ চা চামচ হলুদ গুঁড়া
২ টেবিল চামচ সাদা সরষে বাটা
১ চা চামচ কাঁচা লঙ্কা বাটা
১ টেবিল চামচ নারকেল কুচি
১/২ চা চামচ কালোজিরে
স্বাদমতো নুন
সামান্য চিনি
১/২ কাপ তেল।

পদ্ধতি:

প্রথমে বেগুনগুলি ধুয়ে গোল গোল করে কেটে নিয়ে একটি বড় পাত্রে রেখে দিতে হবে। তারপরে এই বেগুন গুলিতে মিশিয়ে দিতে হবে লঙ্কাগুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো নুন এবং সামান্য চিনি। এরপর কড়াইতে তেল গরম করে বেগুন গুলিকে ভালো করে হালকা বাদামি করে ভেজে নিতে হবে। তেল ঝরিয়ে দেবার জন্য বেগুন গুলিতে একটু টিস্যু মুড়িয়ে রাখতে হবে।

এরপর পানি নাকি গরম হাওয়া দিলে কালো জিরা ফোড়ন দিয়ে কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করতে হবে। এর পা দিয়ে দিতে হবে সরষে বাটা, কাঁচা লঙ্কাবাটা, নারকেল কুচি এবং সামান্য নুন। মসলা থেকে তেল বেরিয়ে এলে পরিমাণমতো জল দিয়ে আরও কিছুক্ষণ কষিয়ে নিতে হবে।

এরপর খুব সাবধানে বেগুনগুলি মশলা টা দিয়ে ৩ থেকে ৪ মিনিট রান্না করতে হবে ঢেকে। মাখোমাখো হয়ে গেলে বেগুনগুলি একটি পাত্রে তুলে নিয়ে উপরে দিয়ে দিতে হবে বেরেস্তা। এবার এটিকে পোলাও অথবা খিচুড়ির সঙ্গে পরিবেশন করলেই আপনার প্রশংসা আর আটকায় কে।