নাম ব’দ’লে ফে’র ভারতে আ’স’ছে Tiktok

গত বছরের জুন মাসে গালওয়ান উপত্যকায় ভারত-চীন সীমান্ত সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে উভয় রাষ্ট্রের সম্পর্কে ব্যাপক প্রভাব পড়ে। চীনকে শায়েস্তা করতে চীনের তৈরি প্রায় ৫৯টি মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ভারতে বাতিল করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় সরকার। এই তালিকায় ছিল জনপ্রিয় টিকটক অ্যাপ্লিকেশনটি। ভারতবর্ষে একসময় টিকটকের বহু গুনগ্রাহী ছিলেন। ভারতে টিকটক ব্যান হয়ে যাওয়াতে এক নিমেষের মধ্যে কোটি কোটি ইউজার হারিয়ে ফেলে সংশ্লিষ্ট সংস্থা।

অন্যদিকে টিকটকের ভারতীয় ব্যবহারকারীদেরও মন খারাপ হয়ে যায়। পরে অবশ্য টিকটকের মতই বেশ কয়েকটি অ্যাপ্লিকেশন বানানো হয় তবে সেগুলি টিকটকের মতো ততটা জনপ্রিয়তা অর্জন করতে পারেনি। এদিকে টিকটকের মালিকানাধীন সংস্থা বাইটডান্সও এ কদিন ভারতের বাজারে টিকটক ফেরানোর জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে এসেছে। এবার তাদের সেই প্রচেষ্টা সফল হতে চলেছে বলেই জানা যাচ্ছে।

খুব শীঘ্রই নাকি ভারতের বাজারে ফিরবে টিকটক। কম দৈর্ঘ্যের মজার ভিডিও বানিয়ে আবার সেগুলিকে সোশ্যাল সাইটে পোস্ট করতে পারবেন সাধারণ মানুষ। টিকটকের নির্মাতা ByteDance সংস্থা ট্রেডমার্ক বদলে দেশে টিকটক পুনরায় চালু করার ব্যাপারে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। গত ৬ জুলাই বানান বদলে TickTock নাম দিয়ে ট্রেডমার্ক অ্যাপলিকেশন করেছে বাইটডান্স।

নির্মাতা সংস্থার দাবি, প্রযুক্তিগত ভাবে এবং ডিজাইনে TikTok অ্যাপের থেকে TickTock অ্যাপটি অনেকাংশে আলাদা। তবে এর ফিচার আগের মতই হবে। অর্থাৎ এই অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করে আগের মতোই মজার মজার ভিডিও বানাতে পারবেন ব্যবহারকারীরা। ভারতের বাজারে আবার টিকটককে ফিরিয়ে আনতে ভারত সরকারের সঙ্গে কথা বলেছে নির্মাতা সংস্থা। এমনকি এর জন্য রিলায়েন্সের সহায়তাও চেয়েছিল তারা। সংশ্লিষ্ট সংস্থার দাবি, তারা তাদের লক্ষ্যে অনেকখানি পৌঁছতে পেরেছে। অতএব ভারতের বাজারে আবার টিকটক চালু হওয়া এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা।