টিকিট পরীক্ষকরা পাবেন প্রথম পাবেন ক’রো’নার ভ্যা’ক’সিন, ঘোষণা রেল মন্ত্রকের

১৬ই জানুয়ারি থেকে দেশজুড়ে গণহারে করোনার ভ্যাকসিন প্রদানের কর্মসূচি শুরু হচ্ছে। প্রথম পর্বের করোনা ভ্যাকসিন প্রদানের কর্মসূচিতে দেশের প্রথম সারির করোনা যোদ্ধাদের ভ্যাকসিন প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে, প্রশাসনিক ক্ষেত্রে, সাফাই কর্মী থেকে শুরু করে বিভিন্ন সরকারি পরিষেবা যেমন রেল দপ্তরে কর্মরতদেরও প্রথম পর্যায়ে টিকা প্রদানের কথা ভাবা হচ্ছে।

রেলের ফ্রন্টলাইন কর্মীদের মধ্যে টিকিট পরীক্ষকরা সরাসরি যাত্রীদের সংস্পর্শে আসেন। তাই রেল কর্মীদের মধ্যে টিকিট পরীক্ষকরাই প্রথমে ভ্যাকসিন পাবেন বলে জানানো হয়েছে। টিকিট পরীক্ষকদের পরেই টিকা পাবেন সংরক্ষিত ও অসংরক্ষিত ক্ষেত্রে কর্মরত বুকিং ক্লার্করা। কারণ এরাও সরাসরি সাধারণ মানুষের সংস্পর্শে আসেন। এরপর আরপিএফ, জিআরপি, লোকো পাইলট, ট্রেনের গার্ড, স্টেশনে এবং লাইনে কর্মরত রেলকর্মীরা ধাপে ধাপে টিকা পাবেন।

রেলবোর্ডের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর বিনয় শ্রীবাস্তব রেল কর্মীদের টিকা প্রদান নিয়ে এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশিকা প্রকাশ করেছেন। তার সেই নির্দেশিকা প্রকাশের পরেই নির্দেশ অনুযায়ী টিকা প্রদানের জন্য অগ্রাধিকার ভিত্তিতে রেল কর্মীদের তালিকা প্রস্তুতির কাজ চলছে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, উক্ত নির্দেশ এখনও পূর্ব রেলের দপ্তরে এসে পৌঁছয়নি। রেলের বি আর সিং হাসপাতালের মেডিক্যাল ডিরেক্টর এস কে রক্ষিতের বক্তব্য অনুসারে, তারা আপাতত নির্দেশ আসার অপেক্ষায় রয়েছেন।

তবে তিনি এও জানিয়েছেন, নির্দেশ আসামাত্রই তারা কাজ শুরু করে দিতে পারবেন। তাদের হাসপাতালের সেই পরিকাঠামো রয়েছে। বি আর সিং হাসপাতালে সারা বছরই রুটিন ভ্যাকসিন দেওয়া হয়। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, করোনাকালে রেলের অন্তত ৩০ হাজার রেলকর্মী আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে সাতশো কর্মীর মৃত্যুও হয়েছে।