কৃষক আন্দোলনে হরিয়ানা থেকে আসছে হাজার খানেক ট্র্যাকটর, উত্তেজনা বাড়ছে

একটা সময় মনে করা হয়েছিল কৃষক আন্দোলনের তেজ হয়তো কমে গিয়েছে, কিন্তু না এ যেন একেবারে উল্টো পুরান। কৃষক আন্দোলনের উত্তেজনা আরও বৃদ্ধি পেতে চলেছে, কারণ দিল্লি উত্তরপ্রদেশর গাজীপুর সীমানায় হাজার হাজার কৃষক অবস্থান করছে, তাছাড়া হরিনা থেকেও আরো অনেক মাত্রায় ট্রাক্টর এসে উপস্থিত হচ্ছে। ইতিমধ্যেই আরও কৃষক আসার খবর শুনতে পেয়ে ফের গরম পরিস্থিতি। এদিকে ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়ন নেতা রাকেশ টিকায়েত দারুণভাবে অনড় তাদের আন্দোলনে।এদিকে আবার শোনা যাচ্ছে দিল্লি উত্তরপ্রদেশ সীমান্তে গাজিয়াবাদ এলাকা যে সমস্ত কৃষক কৃষি আইনের বিরোধিতা করেছে তাদের জলবিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে প্রশাসন।

এ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের তরফ থেকে কৃষকদের পক্ষে রায় দেওয়া হয়েছে, সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে গাজীপুর এলাকায় কোন ধরনের উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি হয়নি কৃষকরা শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করে চলেছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও উত্তরপ্রদেশ প্রশাসন তাদের সেখান থেকে সরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে এমনকি অনেককে গ্রেপ্তার পর্যন্ত করা হয়েছে।

কিন্তু ইতিমধ্যেই আন্দোলনরত ২২ জনের নামে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। যার মধ্যে সর্বপ্রথম রয়েছেন রাকেশ টিকায়েত। রিপোর্টে বলা হয়েছে জাতীয় সড়ক ধরে আন্দোলনরত কৃষকেরা ব্যারিকেড ভেঙে ফেলে পুলিশের সাথে হাতাহাতি পর্যন্ত করে। যার ফলে ৪০০ জন পুলিশ আহত হয়। তাছাড়া নির্ধারিত সময়ের আগেই ট্রাক্টর নিয়ে মিছিল শুরু করে কৃষকরা।