তিনি দেশের প্রথম টপলেস প্রধানমন্ত্রী হ’তে চান এই তরুণী! শোরগোল নে’ট পা’ড়া’য়

ইংল্যান্ডের একজন নামী পরিবেশকর্মী হলেন লারা আমহার্স্ট। তবে তার আরেকটি পরিচয় আছে। মাঝেমধ্যেই তিনি টপলেস হয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ফটো আপলোড করেন বা প্রকাশ্যে আসেন। সম্প্রতি সেই তরুণী তার জীবনের একটি গোপন ইচ্ছার কথা প্রকাশ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, তিনি তার দেশের প্রথম টপলেস প্রধানমন্ত্রী হতে চান।

জলবায়ু পরিবর্তনের ব্যাপারে সকলকে সচেতন করার উদ্দেশ্যে অভিনব উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন লারা। মাঝেমধ্যেই তিনি সোশ্যাল মিডিয়াতে উন্মুক্ত বক্ষে এসে হাজির হন। জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত ইস্যু যত বেশি মানুষের মধ্যে প্রচার করা সম্ভব হয়, সেই উদ্দেশ্যে তিনি এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন।

Topless Extinction Rebellion protester 'open to polyamory' begins hunt for  a girlfriend - Daily Star

ওই তরুণী সম্প্রতি দাবি করেছেন তিনি যদি ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী হবার সুযোগ পান তাহলে তিনি বরিস জনসনের থেকেও ভালো ভাবে দেশ সামলাতে পারবেন। ওই তরুণীর দাবি, রাজনীতিতে আধুনিক বরিস জনসনের থেকেও বেশি ভালোভাবে বোঝেন। যদিও আপাতত রাজনীতির তুলনায় পড়াশোনার প্রতি অধিক মনোযোগ দিয়েছেন তিনি।

আপাতত স্নাতক স্তরের পড়াশোনা করছেন লারা। স্নাতক উর্ত্তীন হওয়ার পরে তিনি রাজনীতিতে প্রবেশ করতে চান। সাসেক্সে প্রথমবার টপলেস হয়েছিলেন লারা। তারপর থেকে বহুবার জনসমক্ষে টপলেস অবস্থায় হাজির হয়েছেন তিনি। লারা জানাচ্ছেন প্রথম প্রথম তার মা এতে বেশ হতভম্ব হয়েছিলেন। কিন্তু পরে তিনি মেয়ের এই উদ্যোগকে সমর্থন জানিয়েছেন।