বিশ্বের সবথেকে ল’ম্বা নারীর তকমা পেলেন এই মহিলা, জানুন কি বললেন নিজের জী’ব’ন স’ম্প’র্কে

এবার খোঁজ মিলল বিশ্বের সব থেকে লম্বা মহিলার, যার নাম ইতিমধ্যেই গিনিস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ড লিখিত হয়েছে। নাম রুমেইশা গেলগী, তিনি একজন তুর্কির বাসিন্দা। তাঁর উচ্চতা প্রায় সাত ফিট সাত ইঞ্চি। তবে তিনি কিছু হরমোনাল সমস্যা নিয়ে জন্মগ্রহণ করেছিলেন, যা যথেষ্টই একটি বিরল জেনেটিক রোগ, তাহলো উইভার সিনড্রোম, যা অস্বাভাবিক ভাবে মানুষের শারিরীক বৃদ্ধি ঘটায়। তবে এ নিয়ে বিন্দুমাত্র মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন নি রুমেইশা। বরঞ্চ তিনি সেটিকে খুব সাহসের সাথেই গ্রহণ করেছেন।

যার ফলে তার জীবনে এসেছে একের পর এক সাফল্য মাত্র আঠারো বছর বয়সে কিশোরী বিভাগে জীবিত মহিলা হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ার পর এটি তাঁর জীবনের দ্বিতীয় রেকর্ড রুমেইশা। তবে নিজের এই পরিস্থিতির সঙ্গে নিজেকে বেশ খাপ খাইয়ে নিয়েছেন রুমেইশা, তিনি সবসময়ই দাঁড়িয়ে ঘুরতে ভালোবাসেন, নিজেকে কখনোই মন খারাপ হতে দেন না ।

এই বিষয়টিকে নিয়ে সকলের উদ্দেশ্যে বলেন যে উইভার জেনেটিক রোগ সম্পর্কে তিনি মানুষের কাছে সচেতনতা বাড়াতে চান। এই সিনড্রোম সম্পর্কে মানুষের মনের সচেতনতা বাড়াতে হবে এবং তিনি আরও একটি কথা বলেন যে, সমস্ত মানুষ সব কিছুকে ভালোভাবে মেনেন বা গ্রহণ করার মানসিকতা রাখেন তাহলেই পৃথিবীর চারপাশটাও সুন্দর বলে মনে হবে।