UGC-র পা’ঠ্য’ক্র’মে এবার রামায়ণ-মহাভারত

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন স্নাতক স্তরে ইতিহাসের নতুন পাঠক্রম প্রকাশ করার পর রাজনৈতিক তরজা উঠেছে তুঙ্গে। এই পাঠক্রম দেখে অবাক হয়ে গেছেন বহু শিক্ষাবিদ। কারণ একটাই। নতুন পাঠক্রমে রামায়ণ-মহাভারতের কথা উল্লেখ করা থাকলেও মুঘল সাম্রাজ্য অথবা আকবর এর কথা উল্লেখ করা নেই কোথাও। নতুন পাঠক্রম এর সরস্বতী সভ্যতার কথা উল্লেখ করা থাকলেও মধ্যযুগের ইতিহাস রয়েছে অনুপস্থিত।

ইউজিসির নতুন পাঠক্রম মারাঠা দে ইতিহাসে বর্ণিত করা হয়েছে বেশ ভালোভাবেই কিন্তু পাঠক্রমের মধ্যযুগকে নিপুণভাবে উপেক্ষা করায় চারিদিকে প্রশ্নের বন্যা বয়ে গেছে। এছাড়াও রেফারেন্স বইয়ের তালিকা থেকে বাদ পড়েছে রামশরণ শর্মা, ইরফান হাবিব দের মত বই। পাশাপাশি জোর দেওয়া হয়েছে বেদপুরান এবং উপনিষদের ওপর।

৯৯ পাতার পাঠক্রমে অনেকেই আরএসএস এর ছাপ দেখতে পাচ্ছেন। সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের দিক থেকে হিন্দুদের স্থাপত্য, ধর্মীয় মেলা এবং হিন্দু তীর্থ ক্ষেত্র দের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে ভীষণভাবে। পাঠক্রমের ভজন কীর্তন এবং বৈদিক মন্ত্রী রয়েছে। এই পাঠক্রমে রামায়ণ এবং মহাভারত কি ইতিহাসের অংশ হিসেবে দেখানো হয়েছে যা বিতর্ক সৃষ্টি করেছে। ইতিহাসে পৌরাণিক চরিত্র দেখানো হয়েছে ভীষণভাবে। তবে বাদ দেওয়া হয়েছে সতীদাহ রদ, ঔপনিবেশিক যুগের মুক্ত বাণিজ্য নীতি এবং মধ্যযুগের ইতিহাসের বৈচিত্র্যময় কিছু দিক