এবার চীনের ন’জ’রে ভুটান, জমি দ’খ’ল করে বানিয়েছে গো’টা ৪ টি গ্রাম

চীন-ভুটান সীমান্ত এলাকায় ভূটানের ভূভাগে অবৈধভাবে প্রবেশ চীনের। চীন সরকারের কাছে সীমান্তের আশেপাশের এলাকা আত্মসাৎ করে নিজের করে নেওয়াটা যেন একটা নেশার মত হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমেরিকাকে সরিয়ে বিশ্বের ‘ধনকুবের’ তকমা পাওয়ার পরও, এই নেশা যেন আরও বেশি করে গ্রাস করেছে এই বেজিংকে। স্যাটেলাইট চিত্রে এবার তারই কিছু প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। স্যাটেলাইটের মাধ্যমে দেখা গিয়েছে, চীন-ভুটান সীমান্ত এলাকায় ভূটানের ভূভাগে অবৈধ অনুপ্রবেশ করছে চীন। শুধু তাই নয়, সেইসঙ্গে ভুটানের মাটিতে ভূমি দখল করে গত এক বছরে চারটি গ্রামও তৈরি করে ফেলেছে জিনপিং-র সেনারা।

নয়া দিল্লী আর এই বিষয়েই কিছুটা উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। জানা গিয়েছে, ভূমাফিয়া চীনের লোলুপ দৃষ্টির জেরে ভুটানের কিছু অংশ দখল করেছে বেজিং। স্যাটেলাইট চিত্রে দেখা গিয়েছে, ভুটান সীমান্তের প্রায় ২৫ হাজার একর জমি দখল করে নিয়েছে চীন। এখানেই শেষ নয়, সেখানে প্রায় ১০০ বর্গকিলোমিটার এলাকাজুড়ে একাধিক চীনা গ্রাম এবং বসতিও নির্মান করে নিয়েছেন ড্রাগন।

চীন ও ভারত ২০১৭ সালে ডোকলামের যে সামরিক বিবাদে জড়িয়েছিল, সেই বিতর্কিত ডোকলাম মালভূমি অঞ্চলের খুব কাছেই এই গ্রাম তৈরি করেছে চীন। ২০২০ সালের মে মাস থেকে ২০২১ সালের নভেম্বর মাসের মধ্যেই ওই গ্রামগুলো তৈরি করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আশ্চর্যজনক ভাবে এই বিষয়টি এমন সময়ে সামনে এল, যখন সম্প্রতি সময়েই একটি সীমান্ত চুক্তি স্বাক্ষর করেছে চীন ও ভুটান। ভারত ভুটানের জমিতে এই গ্রাম তৈরির বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। ভারত সরকার সেই কারণে বৈদেশিক সম্পর্ক নীতির পাশাপাশি ভুটানের সশস্ত্র বাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে।