ব্যাংকে অতর্কিত “হামলা”, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ছিনিয়ে গ্রেফতার চোর

চুরি করতে এসে স্যানিটাইজার চুরি করার ঘটনা বোধহয় এ বছরই প্রথম শোনা গেল।মানুষের চিন্তাধারার আমূল পরিবর্তন করে দিয়েছে এই করোনাভাইরাস। টাকা থেকেও যে মানুষ বাঁচে না, তা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে এই মহামারী। কিছুদিন আগেই এক করোনা রোগীর বাড়িতে ঢুকে রান্নাবান্না করে খেয়েদেয়ে চলে যায় চোর, বাড়ি থেকে কিন্তু কোন কিছুই চুরি করেনি চোরেরা। তেমনই আরেক অদ্ভুত ঘটনা ঘটে যায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পিয়ার্স স্ট্রিটের ন্যাশনাল ব্যাংকে।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই ব্যাংকে একটি বছর ৩৯ বছরের এক ব্যক্তি জোর করে ব্যাংকে ঢুকে পড়ে। ব্যক্তির নাম মার্ক গ্রে।

তাকে চুরির দায়ে গ্রেফতার করা হয়েছে। কিন্তু কত টাকা চুরি করেছে সে? না, কোন টাকা পয়সা চুরি করেনি। হ্যাঁ আশ্চর্যের বিষয় হলেও এটি সত্যি। শুধুমাত্র হ্যান্ড স্যানিটাইজার নিয়ে চম্পট দেয় অভিযুক্ত। দ্য সিওক্স সিটি পুলিশ ডিপার্টমেন্ট এর কাছে গত মঙ্গলবার ভোর পাঁচটা নাগাদ একটি ফোন যায় ব্যাংকের নিরাপত্তারক্ষী তরফ থেকে। পুলিশকে ফোন করে ব্যাংকের নিরাপত্তারক্ষী জানিয়েছেন, ভোরের আলো ফুটতেই ব্যাংকের বাইরে কাচের দেয়াল ভেঙে ঢুকে পড়েন জনহিত এক ব্যক্তি।কিছুক্ষণ এদিক ওদিক ঘুরাঘুরি করে সামনের ডেস্ক এ রাখা হ্যান্ড স্যানিটাইজার বোতলটি তুলে দৌড়ে পালিয়ে যান অভিযুক্ত।পুলিশ এসে ব্যাংকে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে অভিযুক্তকে চিহ্নিত করে তাকে গ্রেপ্তার করেছে।

অভিযুক্তর কাছ থেকে পুলিশ জানতে পেরেছে যে,বেশ কয়েকবার এমনভাবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার চুরি করে পালিয়েছে গ্রে।ব্যাংকের পাশে নেবারাস্টা স্ট্রিটের অন্য একটি দোকানের কাঁচ ভেঙে টাকা চুরির অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এছাড়া ইতালির একটি রেস্টুরেন্টে হামলা চালিয়েছিলেন অভিযুক্ত। আপাতত পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ মামলা রুজু করেছে পুলিশ। এই ঘটনাটি শুনে কোথাও যেন মনে হয়েছে, বর্তমান পরিস্থিতিতে টাকা-পয়সার থেকে অনেক বেশি দরকার জীবন। আর তার জন্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র জোগাড় করতে হিমশিম খেয়ে যাচ্ছে মানুষ। যতক্ষণ না কোন ভ্যাকসিন বা ওষুধ আবিষ্কার হচ্ছে,ততক্ষণ হ্যান্ড স্যানিটাইজার মাক্স এইসবের ওপরই ভরসা করে থাকতে হবে মানুষকে।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন