‘ভোট দিলেই হবে উন্নয়ন, না দিলে কাজ করার প্রয়োজন নেই’, সাফ জানিয়ে দিলেন অনুব্রত

কিছুদিন আগে, বীরভূমের ভোটের প্রচার চালাতে গিয়ে গ্রামবাসীদের কাছ থেকে স্পষ্ট উত্তর শুনতে বাধ্য হয়েছিলেন বীরভূমে তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। গ্রামের মহিলা বাসিন্দারা তাকে সব জানিয়ে দেন, “কাজ করলে ভোট পাবে তৃণমূল, না করলে পাবে না।” এবার রবিবার বীরভূমের নলহাটি ১ নম্বর বুথের কর্মীসভায় যোগ দিয়ে বুথ সভাপতির উদ্দেশ্যে ‌অনুব্রত মণ্ডলের বক্তব্য, “ভোট না দিলে কাজ করার কোনো প্রয়োজন নেই”।

এদিন, এলাকার বুথ সভাপতি অনুব্রত মন্ডলের কাছে অভিযোগ জানান, এলাকায় যথেষ্ট উন্নয়নের কাজ হয়েছে। সেই তুলনায় তৃণমূলের দিকে ভোট কম পড়ছে। বুথ সভাপতির এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে জেলা সভাপতির মন্তব্য, বিজেপিকে ভোট দিলে উন্নয়ন হবে না। তিনি এও বলেন, “এলাকায় জানিয়ে দিন, কিছু দিলে তবেই কিছু মিলবে। ভোট যদি না মেলে, তাহলে উন্নয়নের কাজ করার কোনো প্রয়োজন নেই।”

জেলা সভাপতির এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে, পাল্টা জবাব দিয়েছেন বিজেপির বীরভূম জেলা সভাপতি শ্যামাপ্রসাদ মণ্ডল। তার বক্তব্য অনুসারে, ২০২১এর বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যে তৃণমূলের আর কোনো অস্তিত্ব থাকবে না। রাজ্যবাসীই ওদের তাড়াবেন। তখন বিজেপি মানুষের উন্নয়নের স্বার্থে কাজ করবে।

অনুব্রত মণ্ডলের বিতর্কিত মন্তব্যের পাল্টা জবাব দিয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রবিবার পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশিয়াড়িতে একটি সভায় অংশগ্রহণ করে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, ভোট না দিলে যারা উন্নয়ন থামিয়ে দেওয়ার কথা বলে, তাদের রাজনীতি করতে দেওয়াই উচিত না। তিনি আরো বলেন, শুধু অনুব্রত মণ্ডল নয়, তৃণমূলের বাকি সদস্যদের মানসিকতাও এরকমই। তাই, আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের উপযুক্ত শিক্ষা দেওয়া দরকার বলেই মন্তব্য করেছেন দিলীপ ঘোষ।