বর্ষা বিদায় নিতে গিয়েও রয়েছে থমকে, পুজোতে কি হবে বৃষ্টি? অবশেষে যা জানালো হাওয়া দপ্তর

এবার পুজোয় বর্ষার জলে ভাসতে চলেছে বাঙালি। আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে অন্ততপক্ষে তেমনটাই দাবি করা হচ্ছে। অক্টোবর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহেই বাংলা থেকে বর্ষা বিদায় নেওয়ার কথা। তবে বঙ্গোপসাগরে একের পর এক নিম্নচাপের সৃষ্টির ফলে আরো বেশ কিছুদিন এ রাজ্যে টিকে যাবে বর্ষা। আর সপ্তাহ খানেক পরেই দুর্গোৎসব। তার আগে কোনো ভাবেই বাংলা থেকে বর্ষা বিদায় নেবে না বলেই জানাচ্ছে মৌসম বিভাগ।

আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, এবছর বিদায় নেওয়ার আগে মধ্য ভারতে যেন থমকে গিয়েছে বর্ষা। সারা দেশজুড়ে এবার বর্ষার বিদায় পর্ব বেশকিছু দিন পিছিয়ে গিয়েছে। আবহাওয়া দপ্তরের ক্যালেন্ডার অনুযায়ী গত ১৭ই সেপ্টেম্বর রাজস্থানের বিকানির এবং জয়সালমীর থেকে বর্ষা বিদায় পর্ব শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু, তার ঠিক ১১ দিন পরে অর্থাৎ ২৮ তারিখ থেকে রাজস্থানে বর্ষা বিদায় নিতে শুরু করে।

আবহাওয়াবিদরা জানাচ্ছেন, এই “বর্ষা-বিদায় রেখা”কতটা সক্রিয় থাকবে তার উপরেই নির্ভর করবে পুজোতে বৃষ্টি হবে কিনা। আপাতত এই রেখা গত এক সপ্তাহ ধরে ফৈজাবাদ , ফতেপুর , রাজগড় , বল্লভ বিদ্যানগর হয়ে পোর বন্দর পর্যন্ত বিস্তৃত বলে জানা গেছে। আবহাওয়া দপ্তর সূত্রের খবর, এবছর ১৪ই অক্টোবর বাংলা থেকে বর্ষা বিদায় নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু দেশের প্রায় প্রতিটি রাজ্যের মত এরাজ্যেও বর্ষা বিদায় নেওয়ার দিন আরো ১০ থেকে ১২ দিন পিছিয়ে গিয়েছে।

যার ফলে, বাংলা থেকে বর্ষা বিদায় নিতে নিতে অক্টোবরের শেষ সপ্তাহ হয়ে যাবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন আবহাওয়াবিদেরা। স্বভাবতই, পূজার মধ্যে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা থেকে যাচ্ছে। ১৫ই অক্টোবর থেকে আগামী ২৩শে অক্টোবর পর্যন্ত মেঘলা আকাশের পাশাপাশি বেশ কিছু জায়গায় ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। তবে এ রাজ্যে অবশ্য ভারী বৃষ্টির তুলনায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ হালকা মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনার কথা জানানো হচ্ছে।