মাত্র ২টি ম্যাচ হয়েছে, তাতেই আম্পায়ারিং নিয়ে প্রশ্ন ওঠা শুরু হয়ে গিয়েছে !

আইপিএল সবে শুরু হয়েছে। অনুষ্ঠিত হয়েছে মাত্র ২ টি ম্যাচ। এরই মধ্যে আম্পায়ারিং নিয়ে প্রশ্ন শুরু হয়েছে। দ্বিতীয় ম্যাচে আম্পায়ারের ভুল সিদ্ধান্তের খেসারত দিতে হল পাঞ্জাবকে। গতকাল দিল্লি বনাম পাঞ্জাব ম্যাচে ওঠে আম্পায়ারিং নিয়ে প্রশ্ন। আম্পায়ারের একটা ভুল সিদ্ধান্তে খেলা ফল পুরোপুরি উল্টো হয়ে যায়। কেউ কেউ দাবি তুলেছেন, আম্পায়ার নিতীন মোহনের ভুল সিদ্ধান্তের জন্যই ম্যাচটা পাঞ্জাব হারল। দিল্লি প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ১৫৭ রান তোলে। দিল্লির হয়ে মার্কাস স্টোয়নিস ২১ বলে ৫৩ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেন।

অন্যদিকে পাঞ্জাবের হয়ে ব্যাটিং করতে নেমে মায়াঙ্ক আগরওয়াল ৬০ বলে ৮৯ রানের ইনিংস খেলেন। এর ফলে জয়ের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছিল পাঞ্জাব। শেষ দশ বলে জেতার জন্য প্রয়োজন ছিল ২১ রানের। কাগিসো রাবাডার ওভারের দ্বিতীয় বলে বাউন্ডারি মারেন মায়াঙ্ক। তৃতীয় বল ইয়র্কার করেন রাবাডা। মায়াঙ্ক মিড-অন এর দিকে শট খেলেন, ফিল্ডার কাছেপিঠে না থাকায় ২ রান নেওয়ার সুযোগ ছিল। মায়াঙ্ক ও জর্ডন ২ রান পূর্ণ করেন।

কিন্তু স্কোয়ার লেগে দাঁড়ানো আম্পায়ার জানান, জর্ডনের ব্যাট ক্রিজ ছোঁয়নি এবং তিনি এক রান বাতিল করে দেন। পরে টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত ভুল ছিল। জর্ডনের ব্যাট ভাল মতো ক্রিজ ছুঁয়েছিল। পরে ম্যাচটি টাই হয় এবং সুপার ওভারে দিল্লি জয়লাভ করে। তবে আম্পায়ার ওই সিদ্ধান্ত ভুল না দিলে ম্যাচটি টাই হতনা। সেক্ষেত্রে পাঞ্জাবের জিতে যাওয়ার কথা ছিল।