বাবা-মা কেউই নেই, নিজের পেট চালাতে স্টেশনে ঝালমুড়ি বিক্রি করছে এই খুদে, কুর্নিশ নেট নাগরিকদের

সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে যেমন বিভিন্ন মজার ভিডিও জনসমক্ষে আসে তেমনি অনেক মর্মান্তিক দুঃখের ভিডিও আমাদের কাছে পৌঁছায়। যা দেখে আমরা চোখের জল ধরে রাখতে পারিনা। কখনও দেখি অন্ধ মানুষ ধূপ বিক্রি করছে। কখনো বা হাত বা পা নেই এমন মানুষ বিভিন্ন জিনিস ট্রেনের মধ্যে বিক্রি করছে। যা দেখে আমাদের মন ভারাক্রান্ত হয়ে ওঠে।

এবার ভাইরাল হওয়া একটা আবেদনের থেকে জানা যায় শিয়ালদার সাউথ লাইনের দিকে দাঁড়িয়ে এক ছোট্ট বালক ঝাল মুড়ি বিক্রি করে। খুদেটির বয়স প্রায় 12 থেকে 13 বছর হতে পারে। তার বাবা-মা কেউ নেই। তাই পেট চালানোর জন্য সে বেছে নিয়েছে ঝাল মুড়ির ব্যবসা। ডিম্ভাত নামে ফেসবুকের একটি পেজ থেকে এই খুদের জন্য একটি সাহায্যের আবেদন করা হয়েছে।

ওই আবেদনে হলুদ রঙের গেঞ্জি পড়া অবস্থায় ওই খুদেটির ফটো দেওয়া হয়েছে। ওই বালকটির নাম মোহাম্মদ নূর। ফেসবুকের ওই পেজ থেকে জনসাধারণের কাছে বলা হয়েছে কোন টাকা পয়সা দিয়ে সাহায্য নয়, এই ধরনের ছোট্ট বালকের কাছ থেকে যদি আপনারা জিনিস কেনেন তাহলে ওই বালকটি এই জীবিকা নির্বাহ করে তার পেটের খাবারটুকু চালাতে পারে।

ফেসবুকের ডিম্মাত পেজের এই আবেদনকে অনেকেই ধন্যবাদ জানিয়েছেন। শিশু শ্রমিক আইনত অপরাধ হলেও গ্রামাঞ্চলের বহু জায়গায় শিশুদের কাজ করতে দেখা যায়। দুবেলা দুমুঠো ভাত তারা ঠিকমতো না পাওয়ায় পড়াশুনা তারা করতে পারে না। তারা লেগে যায় যেকোনো ধরনের কাজে।