ক’রোনা কালে যৌনতায় মেতে উঠলেও মেনে চলুন কয়েকটি বিষয়

বৃষ্টির দিন সকাল থেকেই মনটা কেমন উড়ুউড়ু করতে থাকে। মনে ভালোবাসার সুরের মূর্ছনা জাগে। তার সঙ্গে সঙ্গ দেয় শরীর। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে মন চাইলেও কাছের মানুষের কাছে যাওয়া যাচ্ছে না। তাহলে উপায়? চিন্তা করবেন না। সমস্যা থাকলে তার একটি সমাধান থাকে। নাই বা ছুঁতে পারলেন প্রেমিক অথবা প্রেমিকার শরীর। না ছুঁয়েও কিন্তু রতি সুখের চরম আনন্দে আপনি পেতে পারেন। নিশ্চয় জানতে ইচ্ছা করছে কিভাবে। সেক্স চ্যাট। হ্যাঁ, এই মহামারীর মধ্যেও ভালোবাসার চরম সুখ নিবারক এবং অন্যতম উপায় হল এটি। এটি প্রয়োগ করলে আপনার সাপও মরবে লাঠিও ভাঙবে না। তবে এই সময়ে কয়েকটি বিষয় অবশ্যই আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে।

১) সবার আগে নিজেকে প্রস্তুত করুন। কিছু রোমান্টিক গান শুনে নিন। নার্ভাসনেস কমাতে স্নান সেরে আসতে পারেন। তারপর মনের আনন্দে খানিকটা নেচে ও নিতে পারেন। এরপর মানসিকভাবে একেবারেই প্রস্তুত হয় তবেই শুরু করুন কাজ।

২) নিরাপদ স্থান দেখে সেখানে বসুন। তারপর ভার্চুয়াল রতিসুখে মাতুন আপনার সঙ্গীর সাথে। ধরুন সঙ্গীকে কোন উত্তেজনা পূর্ণ বার্তা পাঠাচ্ছেন। হঠাৎ দেখলেন পেছনে দাঁড়িয়ে আছেন আপনার বাবা, সেটা নিশ্চয়ই আপনার পক্ষে খুব একটা সুখকর হবে না। তাই আগে নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করে নেবেন।

৩) কামের আগুন মেতে গিয়ে হঠাৎ করে চরম শব্দ লিখে ফেলবেন না। আগে আস্তে আস্তে শরীর মন সব কিছু বুঝে নিন সঙ্গীর। তারপর ভাষার খেলায় মেতে উঠুন। ধীরে ধীরে আসল কথায় প্রবেশ করবেন।

৪) ব্যক্তিবিশেষ সেক্সুয়াল ফান্টাসি একেবারেই আলাদা হয়। অনেক সময় সঙ্গীর কল্পনা আপনার কাছে হাস্যকর হতে পারে, কিন্তু ভুলেও এই সময়ে তাকে নিয়ে কোনো হাসি ঠাট্টা করবেন না। সাথে ফোনের ওপারের মানুষটা অপমানিত বোধ করতে পারে।পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে আপনি পরে আপনার মনের কথা বোঝাতে পারবেন না তাকে।

৫) প্রেমের উত্তেজনা চরমে, ঠিক তখনি আপনার ফোনের চার্জ শেষ হয়ে গেল। এইরকম যেন একেবারেই না হয়। প্রেম আলাপ শুরু করার আগে দেখে নেবেন আপনার ফোনের চার্জ এবং ব্যালেন্স দুটোই ঠিকঠাক আছে কিনা।

৬) প্রেম করার সময় নিজের কল্পনা কে প্রশ্রয় দিন। ভাষার উন্নত করুন। ইতিবাচক কথা না বলে ক্রমাগত প্রশ্ন করতে থাকুন সঙ্গীর সাথে। এই যেমন ধরুন, আপনার মনের মানুষ্ ঠিক এই সময় কি পড়ে রয়েছে? কি পড়ে থাকলে আপনার তাকে ভালো লাগে। বারবার বুঝিয়ে দিন আপনি তাকে কতটা মিস করছেন।

৭) একান্ত প্রয়োজন না হলে কোন ব্যক্তিগত ছবি পাঠাবেন না। তবে টুকটাক ভয়েজ অবশ্যই পাঠাতে পারেন। তাতে আপনার সঙ্গীর অস্তিত্ব আপনি আরো ভালো করে বুঝতে পারবেন।