স্বামীর মঙ্গল কামনায় করওয়া চৌথ করেন স্ত্রী’রা, জেনে নিন এবছরের দিনক্ষণ

আমরা সকলেই জানি যে অ বাঙালি হিন্দুদের রীতিনীতির মধ্যে সবথেকে উল্লেখযোগ্য হলো করবা চৌথ। এই ব্রতটি পালন করে থাকেন প্রত্যেক হিন্দু বিবাহিত মহিলারা। আমাদের পশ্চিমবঙ্গে এই রীতিনীতির খুব একটা প্রচলিত না থাকলেও,উত্তর প্রদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে খুবই নিষ্ঠা ভাবে পালন করা হয় এই ব্রতটি। বিশেষত হরিয়ানা, পাঞ্জাব, উত্তর প্রদেশ এবং হিমাচল প্রদেশ এ অঞ্চলে পালন করা হয় এই ব্রত।আমাদের দেশে যেমন স্বামীর মঙ্গলকামনায় বিভিন্ন রীতিনীতি র চল রয়েছে, তেমনি অবাঙালি হিন্দু বাঙ্গালীদের মধ্যে সবথেকে বড় উৎসব হলে করবা চৌথ।

করবা চৌথর দিনে বিবাহিত মহিলার স্বামী দীর্ঘায়ু কামনা জন্য উপবাস করে থাকেন। এই দিন মহিলারা হাতে মেহেন্দি পড়েন। জ্যোতিষশাস্ত্র মতে, প্রতিবছর কার্তিক মাসের কৃষ্ণপক্ষের চতুর্থী তিথিতে এই ব্রত উদযাপিত হয়। এই দিনে গণেশ পুজো করা হয়। এই ব্রত পালন করার জন্য মহিলারা সারাদিন নির্জলা উপোস করে থাকেন। সন্ধ্যেবেলা যতক্ষণ না চাঁদ আকাশে উঠে, ততক্ষণ মহিলারা তাদের উপবাস ভঙ্গ করেন না। আকাশে চাঁদ উঠলে, স্বামীর হাতে জল খেয়ে পুজো করে তারপর উপবাস ভঙ্গ করেন মহিলারা।

করবা চৌথ এদিন উপবাসের বিশেষ একটি তাৎপর্য রয়েছে। এই দিন এই ব্রত নিয়মাবলীর বিশেষ কিছু গুরুত্ব রয়েছে। নিষ্ঠা ভরে এই নিয়মগুলো পালন করলে তবেই এই ব্রতের ফল অর্জিত হয়।

করবা চৌথ-এর উপবাসে সর্গী খাবার প্রচলন রয়েছে। এটি হলো শাশুড়ির থেকে পাওয়া একটি আশীর্বাদ। ঘরের বউয়ের হাতে শাশুড়ি রা তাদের ছেলের মঙ্গলকামনায় দ্রুত করার জন্য বিভিন্ন উপকরণ তুলে দেন। সকালের ব্রত সর্গি করবা চৌথ এর জন্য পালন করা হয়। করবা চৌথ-এর দিন চাঁদ দেখার পর উপবাস ভঙ্গ করা উচিত।

করবা চৌথ এর উপস এর সময় মাটির ঘটে পূজো করা হয়। এর বাইরে করবা চৌথ-এর বস কথা শোনা উচিত প্রত্যেক মহিলাদের।

করওয়া চৌথ ব্রতর নির্দিষ্ট সময়-

২০২০ সালে করওয়া চৌথ ব্রতের নির্দিষ্ট সময় হল ৪ নভেম্বর বুধবার। এই দিন বিকেল ৫ টা বেজে ৩৪ মিনিট থেকে সন্ধ্যা ৬ টা বেজে ৫২ মিনিট পর্যন্ত কারভা চৌথের উপাসনার জন্য শুভ সময়। এই দিন চন্দ্রোদয় হবে সন্ধ্যা ৭ টা বেজে ৫৭ মিনিটে।