আমাদের দিকে তাকিয়ে গোটা দেশ, জওয়ানদের রাখতে হবে “জোশ”, লাদাখে দাঁড়িয়ে বললেন সেনাপ্রধান

আসলে ভারত চিন সীমান্তে যুদ্ধ এখনও পর্যন্ত মেটে নি, দফায় দফায় বৈঠক হওয়া সত্ত্বেও কোনোভাবেই তার এখনও সমাধান তো হয়ই নি, বরং আরও খারাপের দিকেই যাচ্ছে। এখন চিন ভারতের দিকেই উল্টা দোষ চাপাচ্ছে। তারা কোনোভাবেই এখন কোনো কাজে উস্কানি মূলক কিছু করার চেষ্টা করছে । তবে এই দেখে এবার মাঠে নামলেন সেনা প্রধান নারাভানে। তিনি সেনাদের উৎসাহ দিতেই এবার বললেন, আমাদের এখন ধৈর্য্যের পরীক্ষা দেওয়ার সময় এসে গেছে, কারণ সারা দেশ এখন আমাদের দিকে তাকিয়ে আছে। এখন এই কারণেই আমাদের দরকার জোশ। গত তিনমাস থেকে সীমান্তে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনোভাবেই সেই চাপ ও উত্তেজনা প্রশমিত হয় নি।

এখন এই উত্তেজনা চোখে না দেখা গেলেও মনে অনুভব করা যাচ্ছে। কারণ এটি মানসিক চাপ। এখন কূটনৈতিক ভাবে একে অপরকে চাপের সময়, এমনটাই মনে করছে বিশেষজ্ঞরা।এদিকে সেনা প্রধান জানিয়েছেন, আসলে একটা সময় লাইন অব অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছিল, তার জন্য আমরা নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছি, একেবারে সুরক্ষার কথা মাথায় রেখেই।

এদিকে চিফ অফ ডিফেন্স বিপিন রাওয়াত এই সীমান্ত লড়াইয়ের জন্য চিনের দিকে আঙুল তুলেছেন ও সেখানে তিনি বলেছেন ১৯৯৩ সালেই সীমান্ত নিয়ে সব ধরণের সমঝোতা হয়ে গিয়েছিল, কিন্তু তাও চিনের রোষের মুখে পরতে হয়েছে ভারতকে। তবে সব ধরণের মোকাবেলা করতে ভারত প্রস্তুত।অনেক দিন থেকেই চিন ভারতের কিছু কিছু জায়গা দখল করে ছিল, কিন্তু সেনা সূত্রে জানানো হয়েছে, এখন মুকপরী, কালাটপ, স্পাংগুর হ্রদ, এইসব পয়েন্টে ভারতীয় সেনা বিশেষ ভূমিকায় রয়েছে, যার ফলেই চিনা সেনারা পিছু হটেছে।।