উত্তরবঙ্গে প্রবল বৃষ্টির পূর্বাভাস, দক্ষিণবঙ্গ নিয়েও বড় আপডেট দিল হাওয়া অফিস

এখন ওড়িশা উপকূলে তৈরী হয়েছে ঘূর্ণাবাত, আর তার ফলেই দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন রাজ্যের উপকূলে দারুণ একটা প্রভাব পরেছে। বিহার, ওড়িশা, ছত্তিশগড়, অন্ধ্রপ্রদেশ, ও গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ এর ওপরে। আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে এই দক্ষিণ বঙ্গের ওপরে কম বেশী হালকা মাঝারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। আপাতত এই সপ্তাহের মাঝে তেমন কোনও বৃষ্টি না দেখা দিলেও সপ্তাহের শেষে ভালো বৃষ্টি দেখা দেবে বলে জানিয়েছে তারা। যার ফলে কিনা এবারের পূজা আরও মাটি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

এদিকে দক্ষিণ বঙ্গের সাথে উত্তরবঙ্গের কথা যদি বলতে হয় তাহলে আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যেই বজ্রবিদ্যুত সহ বৃষ্টি শুরু হয়ে যাবে। উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, সব জায়গায় তুলনামূলক বেশী বৃষ্টির পরিমাণ বেশী হবে। আজ বৃহস্পতিবার বৃষ্টি চললেও, আগামীকাল শুক্রবার ফের বৃষ্টির পরিমাণ কমলেও সপ্তাহের শেষে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে জেলাগুলোতে।

আজ সকাল থেকেই কলকাতার আকাশ মেঘলা, তার ফলেই এখন আর্দ্রতা জনিত অস্বস্তি, ভ্যাপসা গরম। আগামী দিন গুলোতে ঘূর্ণবাত ও নিম্নচাপের শক্তি আরও বৃদ্ধি পাবে। যার ফলে কিনা উপকূলের জেলাগুলোতে ভারী প্রভাব পরবে, ঝাড়গ্রাম, দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, দুই বর্ধমান, মুর্শিদাবাদ, সব জায়গায়।
আসলে জানা গেছে আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে, ঘূর্ণাবাতের সাথেই নাকি মৌসুমী অক্ষরেখা বিরাজ করছে।

যার ফলেই নাকি আরও শক্তিবৃদ্ধি হচ্ছে ঘূর্ণাবাত। তবে ওড়িশা সন্নিহত অঞ্চলের ঘূর্ণাবাত দুর্বল হয়ে পরলেও, ফের এক নতুন ঘূর্ণাবাত তৈরী হওয়ার আশঙ্কা দেখা যাচ্ছে, যার ফলেই বঙ্গোপসাগর ও আন্দামান সাগরের ওপরে তৈরি হতে পারে নিন্মচাপ, সেটাই পরবর্তী সময়ে অপগ্রর হতে পারে উত্তর পশ্চিম দিকে।